kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: করোনা আতঙ্কের মাঝে পূর্ব বর্ধমানের খণ্ডঘোষ ব্লকে দুই দাঁতাল ঢুকে পড়ল। আর ওই দুই দাঁতালকে নিয়ে নতুন করে আতঙ্ক দেখা দিল প্রায় গোটা পাঁচেক গ্রামে। খণ্ডঘোষের খেজুরহাটি এলাকার বাসিন্দা সেখ মফিজুর রহমান, ওঁয়াড়ি গ্রামের সাইফুদ্দিন মল্লিকরা জানিয়েছেন, শনিবার সাতসকালেই আচমকাই তাঁরা দেখতে পান দুটি বিশালকার দাঁতাল বোরো ধানের জমিতে ঘুরে বেড়াচ্ছে। বিদ্যুৎ বেগে এই খবর রটে যায় আশপাশের এলাকাতে। চলতি সময়ে করোনা উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রতিটি মানুষকে বাড়ি থেকে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। তা সত্ত্বেও এদিন দুই দাঁতালকে দেখতে রীতিমতো কাতারে কাতারে মানুষ ভিড় করে।

খবর দেওয়া হয় খণ্ডঘোষ থানা-সহ বনদফতরে। খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে এসে হাজির হন বনদফতরের লোকজন এবং খণ্ডঘোষ থানার পুলিশ। ডেকে পাঠানো হয় হুলা পার্টিকেও। এরই পাশাপাশি এলাকার মানুষকে বাড়িতে ফিরে যাওয়ার জন্য লাগাতার আবেদনও জানানো হয় পুলিশ ও বনদফতরের পক্ষ থেকে। বনদফতর সূত্রে জানা গেছে, বাঁকুড়ার সোনামুখী জঙ্গল থেকে এই দুটি দাঁতাল এদিন ঢুকে পড়ে খণ্ডঘোষ ব্লকে। খেজুরহাটি, কৈসর, ওঁয়াড়ি, কেলেটি, খোরকোল, গুজেলপুকুর প্রভৃতি গ্রাম এলাকায় রীতিমতো বোরো চাষের জমিতে দাপিয়ে বেড়ায় হাতি দুটি।

গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, বোরো ধানের থোড় আসা শুরু হয়েছে। যা হাতির প্রিয় খাবার। ফলে গোটা এলাকার বিঘের পর বিঘে ধান জমির ব্যাপক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা। একইসঙ্গে বেশ কিছু ফসলেরও ক্ষতি করেছে দুই দাঁতাল। বনদফতর সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার রাতেই তাঁরা খবর পান দুটি দাঁতাল বর্ধমানের দিকে ঢোকার চেষ্টা করছে। সম্ভবত শনিবার ভোরের দিকেই দাঁতাল দুটি খণ্ডঘোষ ব্লকে ঢুকেছে। জানা গেছে,  সন্ধে না্মলেই হাতি দুটিকে ফের বাঁকুড়ার দিকে ফেরত পাঠানোর চেষ্টা করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here