kolkata news

Highlights

  • পঞ্চায়েতের টেন্ডার ওপেনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ
  • পঞ্চায়েতের মধ্যে লাঠিসোটা নিয়ে একে অপরকে মারধরের অভিযোগ উঠল
  • সংঘর্ষে দুই পক্ষের ১২ জন আহত হয়েছেন

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: পঞ্চায়েতের টেন্ডার ওপেনকে কেন্দ্র করে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ। পঞ্চায়েতের মধ্যে লাঠিসোটা নিয়ে একে অপরকে মারধরের অভিযোগ উঠল। সংঘর্ষে দুই পক্ষের ১২ জন আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত পাঁচ জনকে পাঠানো হয়েছে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজে। জানা গিয়েছে, কালনার মন্তেশ্বর থানার শুশুনিয়া পঞ্চায়েতে ৪৩ লক্ষ টাকার টেন্ডার ওপেনের কথা ছিল এদিন। অভিযোগ, স্থানীয় তৃণমূল নেতা বিপু খানের (নাসির উদ্দিন ) নেতৃত্বে পঞ্চায়েতের গেট আটকে তন্ময় মুখার্জির লোকদের ঢুকতে বাধা দেওয়া হচ্ছিল। নিজেরা জোর করে টেন্ডার পাশ করে নিচ্ছিল বলে অভিযোগ। এই নিয়ে দু’দলের মধ্যে শুরু হয় সংঘর্ষ। পরিস্থিতি সামাল দিতে আসে মন্তেশ্বর থানার পুলিশ।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, মন্তেশ্বর থানার শুশুনিয়া পঞ্চায়েতে নতুন ঢালাই রাস্তা ও বেশ কিছু নির্মাণকার্যের জন্য শুক্রবার টেন্ডার খোলার দিন ছিল। আর এই টেন্ডার পাওয়াকে কেন্দ্র করেই এলাকার দুই তৃণমূল নেতা নাসিরুদ্দিন খান ও তন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে পঞ্চায়েতের বাইরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় ও মারপিট শুরু হয়। স্থানীয় তৃণমূল নেতা ও পঞ্চায়েত সমিতির কৃষি কর্মাধ্যক্ষ অজয় রায় বলেন, মন্তেশ্বর পঞ্চায়েত সমিতিতে থাকাকালীন অবস্থায় দুপুরের দিকে শুশুনিয়া পঞ্চায়েতর সদস্য ও অর্থ উপসমিতির দায়িত্বে থাকা জগবন্ধু কোঁয়ার আমাকে ফোনে জানায় যে পঞ্চায়েতে যাওয়ার সময় ওনাকে গাড়ি থেকে নামিয়ে বেশ কয়েকজন আটকে রাখে। সেই খবর পেয়ে অঞ্চল যুব সভাপতির দায়িত্বে থাকা নাসিরুদ্দিন খান তাকে ছাড়িয়ে আনতে গেলে তার ওপর চড়াও হয় বেশ কয়েকজন। বাঁশ ও লাঠিসোটা দিয়ে মেরে মাথা ফাটিয়ে দেয়। এই ঘটনায় বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।

যদিও তন্ময় বন্দ্যোপাধ্যায় নামে ওই তৃণমূল নেতা পাল্টা অভিযোগ তুলে বলেন, অস্বচ্ছতার সঙ্গে পঞ্চায়েত চালাচ্ছেন প্রধান-সহ স্থানীয় কয়েকজন। টেন্ডার ওপেনের দিনেই ওরা গায়ের জোরেই সবকিছু করতে যায়। আর এই থেকেই অশান্তির সূত্রপাত। খবর পেয়েই মন্তেশ্বর হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান বিধায়ক সৈকত পাঁজা। এই বিষয়ে তৃণমূলের ব্লক সভাপতি আজিজুল সেখ বলেন, এই ঘটনা অত্যন্ত নিন্দনীয়। দলের ওপর মহলে জানিয়েছি। দোষীদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই বিষয়ে শুশুনিয়া পঞ্চায়েতর প্রধান পার্থ ঘোষ বলেন, টেন্ডার খোলার দিন ছিল আজ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে পঞ্চায়েতর বাইরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। পঞ্চায়েতর ভেতরেও বেশ কয়েকজন ঢুকে পড়ে। মারপিট, অশান্তির পর পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here