kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, শিলিগুড়ি: ভোট দান পর্ব নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করতে স্মার্ট ইভিএম মডেল নিয়ে এল দুই ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রী। শিলিগুড়ির দাগাপুরের একটি বেসরকারি কলেজের পাঠরতা তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী সম্পূর্ণা মুখটি ও কৃতিকা সাহা, তৈরি করেছে নয়া এই মডেল। ভুয়ো ভোট ও নির্বাচনী সন্ত্রাস রুখতে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত এই মেশিনটি। এই মডেল স্মার্ট ইভিএম মেশিনের মধ্য দিয়ে হাতের আঙুলের ছাপ ও চোখের রেটিনার সনাক্তকরনের পর প্রত্যেক ভোটদানকারীরা এই স্মার্ট ইভিএম যন্ত্রে বোতাম টিপে ভোট দান করতে পারবেন। আঙুলের ছাপ ও চোখের রেটিনা না মিললে ভোটদান করা যাবে না।

এই মডেল মেশিনটিতে ভোটদাতাদের হাতের আঙুল ও চোখের রেটিনার শনাক্তকরনের পর ভোট কক্ষের দায়িত্বে থাকা প্রিসাইডিং অফিসার মেশিনটি ভোটদানের জন্য চালু করতে পারবেন। একজন ভোট দাতা একটি মাত্রই ভোট দান করতে পারবেন। একজন ব্যক্তির একবার ভোট দান হয়ে গেলে উক্ত ব্যক্তির সমস্ত নথি যন্ত্র থেকে মুছে যাবে। পুনরায় ভুয়ো ভোট গ্রহণ করবে না যন্ত্র। সম্প্রতি যে ভুয়ো ভোট ও নির্বাচনী সন্ত্রাস চলছে সে পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে এই স্মার্ট ইভিএমের পরিকল্পনা করে ওই দুই ইঞ্জিনিয়ারিং ছাত্রীর।

সম্পূর্ণা মুখটি জানিয়েছে, দীর্ঘ একমাস ধরে এই মডেল তৈরি করেছে তারা। এই মডেল তৈরিতে কলেজের অধ্যাপক তথা প্রজেক্ট গাইড সুজয় দত্ত তাদের সহায়তা করেছে। শুক্রবার এই প্রকল্পটি কলেজের নির্বাচিত হয়। এই প্রকল্পটি একজিবেশন হয় কলেজে। কলেজ কর্তৃপক্ষ জানায় নির্বাচন কমিশনের কাছে এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি রূপায়নের বিষয়ে আবেদন জানানো হবে। যাতে বর্তমান সমাজের যে ভুয়ো ভোট ও নির্বাচন ঘিরে যে সন্ত্রাস চলছে তা রোখা অনেকটাই সম্ভব হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here