ডেস্ক: এবার সন্ত্রাসবাদী কাজে আদিবাসী শিশুদের নিয়োগ করছে মাওবাদীরা। রাষ্ট্রপুঞ্জ তার বার্ষিক রিপোর্টে এদিন এরকমই এক সতর্কবার্তা জারি করল। এই রিপোর্ট অনুযায়ী, ভারতের ঝাড়খণ্ড এবং ছত্তিসগড় অঞ্চলে মাওবাদীদের মধ্যে শিশু নিয়োগের ঘটনা প্রচলিত বলে দাবি করা হয়েছে। এখানকার সিআরপিএফের জওয়ানরা অবশ্য স্বীকার করেছে যে এইসব অঞ্চলে মাওবাদীদের মধ্যে শিশু নিয়োগের ঘটনা কোনো নতুন কিছু নয়।

‘চিলড্রেনস ইন আর্মড কনফ্লিক্ট’ নামক এক রিপোর্টে বলা হয়েছে যে, বিশ্বের প্রায় ২০টি দেশে শিশুদের জোর করে এইসব সন্ত্রাসবাদী কাজে অন্তর্ভুক্ত করানো। সিরিয়া, আফগানিন, ইয়েমেন, ফিলিপিন্স, নাইজেরিয়ার মতন দেশগুলির পাশাপাশি ভারতের নামও এই তালিকায় আছে। রিপোর্টে আরও জানানো হয়েছে যে, মাওবাদীরা কেমন ধরনের শিশুদের দলে নিয়োগ করবে তার জন্য লটারি ব্যবস্থা চালু রয়েছে।

রাষ্ট্রপুঞ্জের এই রিপোর্টে বিশেষ করে ঝাড়খন্ডের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। সিআরপিএফ প্রধান রাজীব রাই ভাটনগর জানিয়েছেন যে, মুলত ১৬ থেকে ১৮ বছরের কিশোরদের এসব কাজের জন্য দলে নিয়োগ করে মাওবাদীরা। এমনও খবর পাওয়া যাচ্ছে যে, অনেক আদিবাসী পরিবার নিজের ছেলেদের মাওবাদীদের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হচ্ছে অভাবের তাড়নায়। এরা মুলত ইনফরমারের কাজ করে থাকে। মাওবাদীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর অনেক সময়ে গুলির লড়াই চললে তখন এইসব অল্পবয়সি কিশোরদের সামনে এগিয়ে দেওয়া হয়। কারণ তারা জানে যে নিরাপত্তা বাহিনী এইসব শিশুদের ওপর গুলি চালাবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here