Vedic Prostitute
Vedic Prostitute

ডেস্ক: এ এক নিয়ন আলোর জগৎ। সম্পর্ক ও পিছুটান নামক শব্দগুলি থেকে অপার দুরত্ব অতিক্রম করেছে তাঁরা, কিংবা করানো হয়েছে। নেশাটে অন্ধকারে ঘোলাটে চোখে এ জগতের যতদূর দেখা যায় তার সবটাই কুহেলিকাময়। কথাশিল্পের কলমে, প্রেমজ রসে তাঁদের চরিত্র নির্মাণ করেন বটে শিল্পীরা, কিন্তু তার পেছনেও রয়ে যায় কিছু অজানা কথা।

হাতে গোনা দু একটি দেশ ছাড়া পৃথিবীর সব দেশেই প্রায় রয়েছে যৌন ব্যবসা। দেশে বিশেষত পৃথিবীর এই প্রাচীন ব্যবসার ধরনও হয় আলাদা আলাদা। সম্প্রতি জুলি বিন্দেল নামে এক লেখিকার ‘The Pimping of Prostitution’ বই থেকে পাওয়া গেল পতিতালয়ের কিছু তথ্য৷ যা শোনার পর শিরদাঁড়া দিয়ে নেমে আসবে হিমেল স্রোত৷

উনি জানাচ্ছেন, অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড, পৃথিবীর এই দুই দেশে  ভয়ঙ্কর ভাবে নির্যাতিত হন যৌনকর্মীরা। শারীরিক সেই নির্যাতন এমন পর্যায়ে যায়, যা ভাবলে আঁতকে উঠবেন আপনিও। মারধোর থেকে শুরু করে মদের বোতল দিয়ে যৌনকর্মীদের আক্রমণ করেন গ্রাহকরা। বন্ধ দরজার ওপারের সেই অন্ধকারে উঁকিও মারে না আলো৷

ওই পল্লীর এক বাসিন্দা জানিয়েছেন, এখানে অভিযোগ জানানোর মতো কেউ নেই আবার অভিযোগ শোনার মতোও। দিনের পর দিন ধর্ষিত হতে হয় তাঁদের। নিজের জীবনের এক ঘটনা প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, রীতিমতো ধর্ষণ করার পর যৌনাঙ্গে বোতল ঢুকিয়েও দেওয়া হয়েছে। যন্ত্রনায় চিৎকার করছিলেন তিনি। ভেবেছিলেন পরে ওই ব্যক্তির নামে পুলিশে অভিযোগ করবেন, কিন্তু বুঝেছিলেন সেক্ষেত্রে কোনও লাভ নেই। কারন পুলিশ তাঁকে সাহায্যের বদলে জিজ্ঞেস করবে বোতলের দৈর্ঘ্য-প্রস্ত কেমন ছিল! কি রঙের ছিল সেই বোতলটি? এখানে যা ইচ্ছে তাই করা হয় যৌনকর্মীদের সঙ্গে।

কিন্তু হিসেব বলছে, অস্ট্রেলিয়াতে যৌনব্যবসা কিছু জায়গাতে বৈধ আবার সরকারের নিয়ন্ত্রণও রয়েছে এই ব্যবসাতে। কিন্তু নিউজিল্যান্ডে ২০০৩ থেকে এই ব্যবসা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করে সরকার। তাসত্ত্বেও ভয়ঙ্কর ভাবে চলে এই ব্যবসা।

একটি রিপোর্ট বলছে, এখানে ১০০ জনের মধ্যে ৬৭ জন যৌনকর্মে লিপ্ত হওয়ার সময় কন্ডোম ব্যবহার করেন। আর বাকিটা হয় বিকৃত যৌনতা। আর সেটা এমন পর্যায়ে দাঁড়ায় যে মৃত্যুর মুখোমুখিও উপস্থিত হতে হয় যৌনকর্মীদের। তবে পতিতালয় নিয়ে কিছুটা তথ্য প্রকাশ্যে আসলেও বেশিটাই রয়ে গিয়েছে অন্ধকারের অতলে। আর অন্ধকার এমনই এক জিনিস যাকে ধরা যায় না, স্পর্শ করা যায় না, অন্তরের সমস্তটুকু দিয়ে উপলব্ধি করা যায় মাত্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here