মহানগর ডেস্ক: বঙ্গে চলছে ২০২১ বিধানসভা নির্বাচন। মোট আট দফায় চলছে নির্বাচন। ইতিমধ্যে ৩ দফার নির্বাচন হয়ে গিয়েছে। চতুর্থ দফার নির্বাচনের ঠিক পূর্বে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী প্রচারের ভাষণকে ‘বিতর্কিত ও সাম্প্রদায়িক’ বলে আক্রমণ করলেন টলিগঞ্জ বিধানসভার পদ্ম প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়।কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় আসানসোলে দু’বার পদ্ম ফুটিয়ে দিল্লিতে নিজের জায়গা পাকা করেছেন। তাই বিধানসভা নির্বাচনে টলিগঞ্জ কেন্দ্রে ঘাসফুল শিবিরের হেভিওয়েট প্রার্থী অরূপ বিশ্বাসের বিপক্ষে উপযুক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে বাবুলের উপরেই আস্থা রেখেছেন তাঁর দল।

তাই দলের মুখ রাখতে কোমর বেঁধে নেমে পড়েছেন প্রচারে। এদিন প্রচারে এক সাক্ষাৎকারে বাবুল জানিয়েছেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী যে ভাবে প্রচার করছেন তা অত্যন্ত লজ্জাজনক। তিনি রাজনৈতিক মঞ্চের বক্তৃতায় সাম্প্রদায়িকতা টেনে এনে রাজনৈতিক বক্তৃতার মান অত্যন্ত নীচে নিয়ে গিয়েছেন।মুখ্যমন্ত্রী শুধুমাত্র আত্মতুষ্টির জন্য একই দেশের মানুষদের বহিরাগত বলে দাগিয়ে দিচ্ছেন। যার ফলে দেশের মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি হচ্ছে এটি সংবিধানের নীতি বিরোধী। নির্বাচন কমিশনের উচিত মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী প্রচারে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা।’ তিনি আরও জানিয়েছেন, ‘রাজনীতিতে আদর্শ ও নীতির লড়াই প্রয়োজন। বিরোধীদলকে কোনভাবেই ব্যক্তিগত আক্রমণ করা উচিত নয়। অথচ সেই কাজটি করছে তৃণমূল। বিরোধী দল মানেই শত্রুপক্ষ হিসেবে ভাবার প্রবণতা বন্ধ হওয়া উচিত। এই ধারা বদলের প্রয়োজন। এই বদল বিজেপি ই করবে।’

 বাবুল সুপ্রিয় এদিন বিজেপির প্রত্যেকটি আসনে প্রার্থী না দিতে পারায় দলের প্রবীণদের নির্বাচনে লড়তে হচ্ছে এই জল্পনার ও উত্তর দিলেন। তিনি জানিয়েছেন, ‘বিজেপি বাংলার সম্মান এবং গর্ব রক্ষার্থে লড়াই করছে। এটি একটি গণতান্ত্রিক দল। তাই নবীন এবং প্রবীণ সকলে মিলে আমরা এই লড়াইয়ে অংশ নিতে চাই। আমাদের মূল লক্ষ্য তৃণমূলকে পরাজিত করা। সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here