ডেস্ক: ডারউইনের বিবর্তনবাদ তত্ত্বকে ভুল প্রমাণ করতে মরিয়া কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সত্যপাল সিং। এই বিজেপি নেতৃত্ব চার্লস ডারউইনের বিবর্তনবাদ তত্ত্বকে ভুল প্রমাণিত করতে সক্রিয় হয়ে উঠেছেন। তিনি বলেছেন, আগামী ২০ বছরের মধ্যে তিনি প্রমাণ করে দেবেন আমদের পূর্বপুরুষরা বানর ছিলেন না। ১৯৮০ সালের মহারাষ্ট্র ক্যাডারের আইপিএস অফিসার ছিলেন এই সত্যপাল সিং। নেহেরু মেমোরিয়াল মিউজিয়াম অ্যান্ড লাইব্রেরিতে একটি বইয়ের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এসে তিনি বলেন, আমাদের দেশের ভাগ্য ভালো তাই জাতীয়তাবাদী মনোভাবাপন্ন একজন সরকার ক্ষমতায় এসেছেন। বিদেশের ৯৯ শতাংশ বিশ্ববিদ্যালয় হিন্দু ধর্মকে নিয়ে ভুল শিক্ষা দেয়।

এই মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী জানুয়ারি মাসেই ডারউইনের তত্ত্বকে বিজ্ঞানের দিক থেক ভুল বলে মন্তব্য করেন। তিনি বলেন তিনি নিজে একজন বিজ্ঞানের ছাত্র ছিলেন। তাই তিনি অনেক বুঝেই এই মন্তব্য করেছেন। যদি কেউ তাঁর বিরোধিতা করতে চায় করতেই পারেন, তবে অনেক মানুষ আছে যাঁরা তাঁর বক্তব্যকে সমর্থনও করবে। তিনি জানিয়েছেন, তিনি এই বিষয়ে একটি বইও লিখছেন। তবে তিনি এই বিষয়ে কোনও পশ্চিমী দেশের সাহায্য নেবেন না। কারণ তিনি বলেন ইংল্যাণ্ডের কোনও অধ্যাপক কি তাঁর তত্ত্ব ঠিক করার আগে ভারতের সহযোগীতা নিয়েছেন? নেননি। তাই তিনিও তাঁর শিক্ষাগত যোগ্যতা অনুযায়ী এই বই লিখবেন।

উল্লেখ্য, এর আগে পুলিশ পাবলিক স্কুল পরিদর্শনে গিয়ে ওই বিজেপি নেতা এবং ছাত্রদের বলেছিলেন, ‘ডারউইন কি জঙ্গলে গিয়ে দেখেছিলেন, যে এপ থেকে মানুষ পরিবর্তিত হচ্ছে। কোথাও এমন কিছু লেখা নেই। শুধু তাই নয়, তার যুক্তি, ‘আমাদের স্কুল কলেজের পাঠ্য বইয়ে এই পরিবর্তন দরকার। স্কুল কলেজগুলির সিলেবাস থেকে এই থিওরি বাদ দেওয়া উচিত।’ এবারও তিনি একই মন্তব্য করে পাঠ্যসূচীর পরিবর্তনের দাবি তুলেছেন। সত্যপাল সিংয়ের এই মন্তব্যের পরই, মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর তাঁকে এই ধরনের মন্তব্য থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দিয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here