ডেস্ক: ধর্ষণকাণ্ডে গ্রেপ্তার হওয়ার পর মূল অভিযুক্ত উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক কূলদীপ সিং সেঙ্গারের দাবি ছিল তিনি শারীরিক ভাবে অক্ষম। কোনওভাবেই তাঁর পক্ষে ধর্ষণ করা সম্ভব নয়। তাঁর এই দাবির সত্যতা পরীক্ষা করতে সেঙ্গারের পোটেন্সি টেস্টের সিদ্ধান্ত নিল সিবিআই।

জানা গিয়েছে, পোটেন্সি টেস্টের জন্য সিবিআই প্রথমে বেছেছিল লখনউয়ের কিং জর্জ মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি বা রাম মনোহর লোহিয়া ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সে কিন্তু এখানে উপযুক্ত পরিকাঠামো না থাকায় দিল্লির এইমসে অভিযুক্ত ওই বিজেপি বিধায়কের পোটেন্সি টেস্ট করানোর সিদ্ধান্ত নেয় সিবিআই। গ্রেপ্তার হওয়ার পরেই সেঙ্গার দাবি করেন তিনি শারীরিক ভাবে অক্ষম। তাঁর এই দাবি যাতে আদালতে সেঙ্গার না তুলতে না পারেন তার অতি দ্রুত পোটেন্সি টেস্ট সেরে নিতে চাইছে সিবিআই। আর এই টেস্টের মাধ্যমে জানা যাবে অভিযুক্ত ব্যক্তি ধর্ষণে সক্ষম কিনা।

উল্লেখ্য, বিগত কয়েকদিনে সারা দেশজুড়ে সাড়া ফেলে দিয়েছে উন্নাও গণধর্ষণ কান্ড। এই ঘটনায় অভিযোগের তির ওঠে উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক কূলদীপ সিং সেঙ্গারের বিরুদ্ধে। কিন্তু গ্রেপ্তার হওয়া তো দূরের কথা এই মামলায় প্রভাব খাটানোর অভিযোগ ওঠে ওই বিধায়কের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে, এই ঘটনার পর নিগৃহিতার বাবাকে লকআপে পিটিয়ে মারার অভিযোগ ওঠে বিধায়কের ভাই ও তার দলবলের বিরুদ্ধে। পরে প্রবল চাপের মধ্যে পড়ে গ্রেপ্তার করা হয় বিধায়ক কূলদীপ সিং সেঙ্গারকে। মামলার তদন্ত ভার নেয় সিবিআই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here