Home Featured বিজেপির প্রতিবাদ সভায় ধুন্ধুমার, পুলিশের লাঠি কেড়ে মার!

বিজেপির প্রতিবাদ সভায় ধুন্ধুমার, পুলিশের লাঠি কেড়ে মার!

0
বিজেপির প্রতিবাদ সভায় ধুন্ধুমার, পুলিশের লাঠি কেড়ে মার!
Parul

নিজস্ব প্রতিনিধিবিজেপির প্রতিবাদ সভায় চলল লাঠি। পুলিশের লাঠি কেড়ে মার গেরুয়া নেতাকর্মীদের। ছত্রভঙ্গ জনতা। পরে পুলিশের জালে এক দুষ্কৃতী। উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুরের ঘটনায় চাঞ্চল্য।বিজেপির অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই ঘটিয়েছে এই ঘটনা। অভিযোগ অস্বীকার তৃণমূল নেতৃত্বের।

স্থানীয় সূত্রে খবর, জনা পঞ্চাশেক লোক নিয়ে প্রতিবাদ সভা করছিলেন বিজেপি নেতারা। ভুয়ো ভ্যাকসিনকাণ্ডের প্রতিবাদে ব্যারাকপুরের চিড়িয়ামোড়ে আয়োজন করা হয়েছিল এই সভার। কোভিড বিধি মেনেই চলছিল সভার কাজ। দূরে দূরে বসেছিলেন নেতা-কর্মীরা। অভিযোগ, ওই সময় আচমকাই সভাস্থলে চলে আসে বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতী। সভাস্থলের আশপাশে তখন দাঁড়িয়ে কয়েকজন পুলিশ কর্মী। এর পরেই পুলিশের হাত থেকে লাঠি কেড়ে নিয়ে এলোপাথাড়ি চালাতে শুরু করে দুষ্কৃতীরা। সভাস্থল ছেড়ে এদিক সেদিক পালিয়ে যান বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। ভাঙচুর করা হয় মাইক। সভায় উপস্থিত নেতাদের মারধর করা হয়। দুষ্কৃতীদের হাত থেকে রেহাই পাননি মহিলারাও। সভাস্থলে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতির সৃষ্টি হলে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। কয়েকজন বিজেপি নেতা দূরে দাঁড়িয়ে থাকা পুলিশের আধিকারিককে জানান পুরো ঘটনাটি। এর পরেই পুলিশ তাড়া করে দুষ্কৃতীদের। সবাই পালাতে সক্ষম হলেও, একজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

বিজেপির অভিযোগ, ঘটনার পিছনে রয়েছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। বিজেপির জেলা সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্য বলেন, কিছু দিন আগে বামেরাও এখানে সভা করেছিল। তখন কিছু হয়নি। এদিন আমাদের সভায় ভাঙচুর চালিয়েছে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। মাইক ভেঙে দিয়েছে। মারধর করেছে মহিলা কর্মীদের। বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল নেতৃত্ব। তাঁদের দাবি, ঘটনার পেছনে কোনও রাজনীতি নেই।   

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here