up news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: রুজি-রুটির টানে ভিটে মাটি ছেড়ে যাওয়া শ্রমিক ও কর্মচারীদের সংখ্যা কম নয় গোটা দেশে। কিন্তু দেশজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন ঘোষিত হওয়ার পরই আচমকা তারা বিপদে পড়ে গিয়েছেন। আপাতত কাজ নেই কারোর হাতে, ফলে কাজের জায়গায় পড়ে থেকে কী হবে বুঝতে পারছেন না দিন আনা দিন খাওয়া লক্ষাধিক মানুষ। প্রত্যেকের মধ্যেই শুরু হয়েছে বাড়ি ফেরার তাড়া। কিন্তু দেশজুড়ে ট্রেন-বাস তো বন্ধ। বাড়ি ফিরতে চাইলেও ফিরবেন কী করে। অগত্যা লাখো লাখো মানুষ পায়ে হেঁটেই কয়েকশো কিলোমিটার পাড়ি দিতে চাইছেন। পরিযায়ী কর্মচারীদের এই দুর্দশার কথা কেন্দ্রের কাছে তুলে ধরেছিলেন রাহুল গান্ধীও। অন্যান্য রাজ্য এখনো সক্রিয় না হলেও উত্তরপ্রদেশ পরিযায়ী শ্রমিকদের বাড়ি ফেরাতে বড় পদক্ষেপ নিল।

লকডাউনের জেরে সীমান্তে আটকে থাকা কয়েক হাজার পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য হাজার খানেক বাসের আয়োজন করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। এই বাসে চাপিয়ে তাদের বাড়ি ফেরানো হবে বলে জানানো হয়েছে। উত্তরপ্রদেশের নয়ডা, গাজিয়াবাদ, লখনউ, আলীগড় ইত্যাদি জায়গায় আটকে থাকা শ্রমিকদের ফেরানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে শুক্রবার থেকে। পরিবহন মন্ত্রকের তরফ থেকে শুক্রবার রাতেই তড়িঘড়ি ড্রাইভার ও বাস কন্ডাক্টর দের ডেকে পাঠানো হয়। শনিবার উত্তরপ্রদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা শ্রমিকদের ওই বাসে করে বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করা হয়।

শুধু তাই নয়, যারা এই পরিস্থিতিতে আটকে করেছিলেন তাদের যাতে খাওয়া-দাওয়ার কোন অসুবিধা না হয় সেই লক্ষ্য রাখা হয়েছে সরকারের তরফে। শ্রমিকদের জল খাবারের ব্যবস্থা করে শনিবার সকালেই কানপুর, বালিয়া, গোরক্ষপুর, আজামগড় ফরিদাবাদ, সুলতানপুর সহ অন্যান্য প্রত্যন্ত এলাকায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। লাগাতার দিন কয়েক দিন আটকে থাকার পর অবশেষে বাড়ি ফিরতে পেরে খুশি পরিযায়ী শ্রমিকরাও। তবে ভবিষ্যতের চিন্তা কিছুতেই ছাড়ছে না তাদের। কবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হবে এবং কবে তারা পুনরায় কাজ শুরু করতে পারবেন এটাই ভাবিয়ে চলেছে তাদের।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here