kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নিজের স্ত্রীকে পিটিয়ে খুনে সন্দেহে এক যুবককে গণপিটুনি উন্মত্ত জনতার৷ লোহার রড দিয়ে বেধড়ক মারে মৃত্যু হল যুবকের৷ পাশবিক এই ঘটনার সাক্ষী থাকল যোগীরাজ্যের ফতেহপুর৷ যুবককে পেটানোর গোটা ঘটনা মোবাইলের ক্যামেরাবন্দি করে ছাড়া হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ যা মুহুর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায়৷ ঘটনায় অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে পুলিশ৷

উত্তরপ্রদেশের ফতেহপুর জেলায় বাপের বাড়িতে নিজের স্বামীকে নিয়ে থাকতেন বছর পঁয়ত্রিশের আফসারি৷ অভিযোগ, মাঝেমধ্যেই তাকে মারধর করত তার স্বামী বছর চল্লিশের নাসির কুরেশি৷ এদিনও কোনওএক কারণে আফসারিকে মারধর করে নাসির৷ দম্পতির মধ্যে বচসা চরমে পৌঁছালে কুঠার দিয়ে আফসারিকে আঘাত করে তার স্বামী৷ অভিযোগ এরপরেই মৃত্যু হয় আফসারির৷ স্ত্রী মারা গিয়েছে দেখে পালানোর চেষ্টা করেছিল নাসির তবে তার শাশুড়ির সহযোগীতায় তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে গ্রামবাসীরা৷ প্রথমে তাকে লক্ষ্য করে এলোপাথারি পাথর ছুঁড়তে থাকে গ্রামবাসীারা৷ এরপরই শুরু হয় বেধড়ক মারধর৷

ভাইরাল হওয়া সেই ভিডিওটিতে দেখা যাচ্ছে, এক ব্যক্তি রাস্তায় মধ্যে পড়ে রয়েছে৷ চার থেকে পাঁচ জন লোক লাঠি ও রড দিয়ে ক্রমাগত মেরে চলেছে তাকে৷ যা দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে দেখছে গ্রামবাসীরা৷ ঘটনার খবর পেতেই অকুস্থলে পৌঁছয় পুলিশ৷ ফতেহপুর পুলিশের ডেপুটি সুপার শ্রীপাল যাদব জানিয়েছেন, ঘটনার পর কোনও ভিডিও কথা জানতে পারেনি৷ তবে তার একদিন পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওটি দেখতে পায় পুলিশ৷ ঘটনায় অভিযুক্ত পাঁচ ব্যক্তিকে শনাক্ত করে তাদের খোঁজ চালাচ্ছে পুলিশ৷ এদিকে নাসির ও তার স্ত্রী আফসারির দেহ ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here