kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মহাভারত আজও আছে৷ আজও দ্রৌপদীরা দুঃশাসনদের হাতে নিগৃহীত হন৷ আদিম যুগ যেন ফিরে এসেছে যোগীর রাজ্যে৷ এখানে গণধর্ষণ নিত্য নৈমিত্তিক বিষয় হয়ে গিয়েছে৷ উন্নাও থেকে জৌনপুর সর্বত্র গণ ধর্ষণ চলছে, সেখানে গরুদের খাওয়ানো, রামের বিরাট মূর্তি নিয়ে ব্যস্ত উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ আর এসব নিয়ে নীরব নরেন্দ্র মোদী থেকে শুরু করে অমিত শাহ৷ এমনকী ‘বিজেপির নারীশক্তির প্রতীক’ কেন্দ্রীয় নারী ও সমাজকল্যান মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি নিজে উত্তরপ্রদেশের সাংসদ হলেও পরের পর ধর্ষণের ঘটনা নিয়ে অসম্ভব রকম উদাসীন৷ উন্নাওয়ের পরে জৌনপুর ফের  উঠে এল গণ ধর্ষণের ঘটনা৷

বাড়িতে দুই বন্ধুকে নিয়ে প্রায় দিন জুয়ো খেলে এক যুবক৷ সেইসঙ্গে চলে মদ্যপান৷ এরমধ্যে একদিন এমন জুয়ার আসরে যুবক তার বউকেই বাজি রাখল৷ যথারীতি বাজিতে হেরে গেল৷ অতঃপর দুই বন্ধুর হাতে তুলে দিল নিজের বউকে৷ তারা গণধর্ষণ করল৷ এই ঘটনার পরে মেয়েটি তার মামা বাড়ি চলে যায়৷ সেখানে পৌঁছায় মদ্যপ জুয়ারি স্বামী৷ পা ধরে ক্ষমা চায়৷ মন ভুলিয়ে ফের বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসে তার স্ত্রীকে৷ গাড়িতে বাড়ি ফেরার পথে ফের গাড়ি থামায় যুবক৷ পথে অপেক্ষা করছিল ওই দুই ধর্ষক৷ ফের যুবকের বউকে ধর্ষণ করল তারা৷ উত্তর প্রদেশের জৌনপুরের ঘটনা৷ এই ঘটনার প্রাথমিকভাবে কোনও এফআইআর নিতে চায়নি পুলিশ৷ পরে নির্যাতিতা দায়রা আদালতের দ্বারস্থ হন৷ আদালতের নির্দেশে পুলিশ এফআইআর নিতে পরে বাধ্য হয়৷ তারা ধর্ষক ও মহিলার স্বামীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে৷ এই মামলার কপি আদালতে জমা দিয়েছে পুলিশ৷

 

‘ফিয়ার ফ্রি’ যোগীর এই কথা উত্তরপ্রদেশে এখন মারাত্মক প্রহসন৷ জঙ্গল সম্ভবত উত্তরপ্রদেশের থেকে ভাল৷ সেখানেও নির্দিষ্ট আইন আছে৷ যা এই মুহূর্তে উত্তরপ্রদেশে নেই৷ ধর্ষণ, খুন এসব এই রাজ্যে আকছার ঘটনা এখন৷ প্রশাসন নির্বিকার৷ পুলিশ ঠুঁটো জগন্নাথ৷ অপরাধ হলে অপরাধীদের বিরুদ্ধে প্রাথমিক অভিযোগ নিতে বেশিরভাগ সময় যোগীর পুলিশের তীব্র অনীহা৷ সন্ত্রস্ত পুলিশ৷ নেতা ও বাহুবলীদের দাপটে তাঁর আইন প্রয়োগ একপ্রকার ভুলতে বসেছে৷ বিজেপি শাসিত এই রাজ্যের অপশাসন অবশ্য ইচ্ছা কের দেখতে পায় না কেন্দ্র৷ মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে চূড়ান্ত ব্যর্থ যোগী আদিত্য নাথ৷ এমনটাই অভিযোগ বিরোধীদের৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here