জম্মু কাশ্মীর নয়াদিল্লির আভ্যন্তরীণ বিষয়, মোদী-ট্রাম্প বৈঠকের আগেই ঘোষণা আমেরিকার

0
111
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিদেশ সফরের ফাঁকেই প্যারিসে জি-৭ সামিটে মুখোমুখি বৈঠকে বসবেন নরেন্দ্র মোদী ও ডোনাল্ড ট্রাম্প। এই বৈঠকের দিকে তাকিয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব। কারণ জম্মু কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ করার পরবর্তী সময়ে এই প্রথম বৈঠক করবেন আমেরিকা এবং ভারতের শীর্ষ দুই নেতা। তার আগে জম্মু কাশ্মীরে ভারতের নেওয়া পদক্ষেপ নিয়ে ফের একবার নিজের অবস্থান স্পষ্ট করল আমেরিকা। এদিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের এক আধিকারিক সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়ে দিয়েছেন, জম্মু কাশ্মীর সম্পূর্ণভাবে ভারতের আভ্যন্তরীণ বিষয়। এখানে কোনও তৃতীয় পক্ষের নাক গলানোর প্রয়োজন দেখতে পাচ্ছে না তারা।

যদিও এর আগে দু’বার কাশ্মীর ইস্যুতে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিয়েছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু দু’বারই ভারতের তরফে তা নাকচ করে দেওয়া হয়। মূলত ইমরান খানের সঙ্গে বৈঠকের পরই এই আগ্রহ দেখিয়েছিলেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি। কিন্তু ভারতের তরফে বিশেষ পানি না পাওয়ায় সেই জায়গা থেকে পিছিয়ে এসেছে আমেরিকা। জি-৭ সামিটে ভারত-মার্কিন বৈঠকে আমেরিকার রণনীতি কী হবে এই কথা বলতে গিয়ে মার্কিন আধিকারিক স্পষ্ট করে দেন, ৩৭০ ধারা বিলোপ করা পুরোপুরি নয়াদিল্লির আভ্যন্তরীণ বিষয়। এতে মধ্যস্থতা করার প্রস্তাব আমেরিকার পক্ষ থেকে দেওয়া হলেও ভারত তাতে অস্বীকার করেছে। এই অবস্থায় পাকিস্তানের উচিত সন্ত্রাসবাদ দমনে আরও সক্রিয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা। এবং নিজেদের দেশের মাটিতে জাল বিছিয়ে ফেলা জঙ্গি গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে কড়া লড়াই করা।

অন্যদিকে ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে একাধিক বিষয়ের ওপর আলোকপাত করেন মার্কিন আধিকারিক। তিনি জানান, আঞ্চলিক শান্তি রক্ষায় ভারতের পরিকল্পনা কী এই নিয়ে মোদীর সঙ্গে আলোচনা করবেন মার্কিন রাষ্ট্রপতি। এর পাশাপাশি ভারতের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় কীভাবে তা নিয়েও নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা হবে ট্রাম্পের। এছাড়া জি-৭ সামিটের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে মূলত তিনটি বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। দু’দেশের মধ্যে প্রতিরক্ষা, বাণিজ্য এবং সন্ত্রাসবাদ দমন নিয়েই প্রধানত আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন আধিকারিক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here