news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: চিন ও ভারতের মধ্যে যে সীমান্ত সংঘাত চলছে, তাতে সবসময় ভারতের পাশেই থাকবে আমেরিকা। সোমবার হোয়াইট হাউজ সূত্রে এমনটাই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি, চিনা আগ্রাসন থেকে যে কোনও প্রতিবেশী রাষ্ট্রই সুরক্ষিত নয়, সেই কথাও স্পষ্টভাবে বলে দেওয়া হয়েছে।

সম্প্রতি দক্ষিণ চিন সাগরে সামরিক অনুশীলন করে চিন। তার পাল্টা হিসেবে সেখানে দুটি এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার ও চারটি যুদ্ধ জাহাজ পাঠায় আমেরিকা। সেই প্রসঙ্গে হোয়াইট হাউজের চিফ অফ স্টাফ মার্ক মিডো বলেন, ‘বার্তাটা একেবারেই পরিষ্কার। চিন অন্য দেশের সঙ্গে দাদাগিরি দেখাবে আর আমরা চুপচাপ বসে দেখবো, তা মোটেও নয়। আমরা সবচেয়ে শক্তিশালী দেশ। আমাদের হোক বা অন্যের, সীমানা রক্ষা আমরা করবই।’

‘চিন ও ভারতের মধ্যে এই দ্বন্দ্বে আমরা ভারতকে সামরিক ভাবে সাহায্য করতে প্রস্তুত। শুধু ভারত নয়, যেকোনও দেশের পাশে মার্কিন সেনা সবসময় আছে’, যোগ করেন তিনি।

অন্যদিকে, চিনা সেনাবাহিনী গালোয়ান নদীর উপত্যকা সহ লাদাখের কমপক্ষে তিনটি জায়গা থেকে এক কিলোমিটার দূর পর্যন্ত নিজেদের সেনাকে পিছিয়ে নিয়েছে। এই তথ্য সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়ার পর ভারতীয় সেনারাও ক্রমশ পিছু হটেছে এবং উভয় পক্ষের মধ্যে একটি বাফার জোনও তৈরি করা হয়েছে। দুই দেশের সেনাবাহিনীর মধ্যে উত্তেজনা কমানোর এটাই প্রথম পদক্ষেপ বলে মনে করা হচ্ছে। সেনা সূত্রে বলা হয়েছে, এর পরবর্তী সিদ্ধান্ত শীর্ষ সেনা কর্তাদের বৈঠকের মাধ্যমে নেওয়া হবে।

তবে একটা বিষয় পরিস্কার, গালোয়ানে ভারতীয় এলাকায় আর ঘাপটি মেরে বসে নেই চিন সেনা। নদীর ধারে যে বেআইনিভাবে তারা তাঁবু বানিয়ে বসেছিল সেগুলিও সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। শুধু গালোয়ান নয়, প্যাংগং লেকের ফোর ফিঙ্গার এলাকা থেকেও চিন পিছিয়ে যেতে শুরু করেছে বলেছে ইঙ্গিত মিলেছে ইতিমধ্যেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here