WHO news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে প্রথম থেকেই তোপ দেগেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সংক্রমণের প্রাথমিক পর্যায় থেকেই ট্রাম্পের দাবি, ভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে বিশ্বকে আগে অবগত করেনি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এর কারণ অবশ্যই চীন। বেজিং সরকারের কথামতো সংক্রমণ প্রসঙ্গ চেপে গিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। একই সঙ্গে তারা ভাইরাস পরিস্থিতি সামলাতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। এই প্রসঙ্গে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার সুর চড়িয়ে ছিলেন তিনি। এবার সেই প্রক্রিয়া সরকারিভাবে শুরু হয়ে গেল আমেরিকায়।

এদিন মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে সরকারিভাবে বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে বেরিয়ে আসবে আমেরিকা। সেই প্রেক্ষিতে প্রক্রিয়া শুরু করে দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। প্রথম থেকেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে ‘চিনের দালাল’ বলে অভিযুক্ত দাবি করছে আমেরিকা। ট্রাম্পের দাবি, চীনের কথা মতো কাজ করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। গোটা বিশ্বের ভাইরাস পরিস্থিতির অবনতির জন্য তারাই দায়ী। সে ক্ষেত্রে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চেয়ে এর আগেও পদক্ষেপ নিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর্থিক সাহায্য বন্ধ করে দেওয়ার মত বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি। এখন সরকারিভাবে সম্পূর্ণরূপে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার থেকে বেরোনোর প্রক্রিয়া শুরু করেছে আমেরিকা। 

একাধিকবার ট্রাম্পেট থেকে অভিযোগ শুনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা অনুরোধ করেছিল এই সময়ে রাজনীতি না করতে। কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার দিকে আঙ্গুল তোলা বন্ধ করেনি ট্রাম্প প্রশাসন। এখন সম্পর্ক সম্পূর্ণরূপে ছিন্ন করার পদক্ষেপ নেওয়ায় সমালোচিত হতে হচ্ছে মার্কিন সরকারকে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে রাষ্ট্রসংঘও আমেরিকাকে রাজনীতি ভুলে সহযোগিতার অনুরোধ জানিয়েছে। যদিও সে সবে পাত্তা দিচ্ছেন না ডোনাল্ড ট্রাম্প। এখন আমেরিকা যদি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার থেকে সরে আসে তবে অবশ্য ভাবে সেটি হু-র ভাবমূর্তি নষ্ট করবে বলেই আশঙ্কা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here