মহানগর ওয়েবডেস্ক: চিনের বিরুদ্ধে ভারতের পাশাপাশি অন্যান্য দেশগুলিও ধীরে ধীরে কড়া অবস্থান নিতে শুরু করেছে। এরই মাঝে আজ দক্ষিণ চিন সাগরে দুটি এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার জাহাজ পাঠাল আমেরিকা। আজ আবার ওই সাগরেই সামরিক অনুশীলন করছে চিন। আর তারই মাঝে আমেরিকার এই যুদ্ধ জাহাজ পাঠানো নিয়ে ক্রমশ উত্তপ্ত হচ্ছে পরিস্থিতি।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, আজ থেকেই সাউথ চায়না সি’তে মোতায়েন থাকবে ইউএসএস রোনাল্ড রেগান ও ইউএসএস নিমিৎস নামে দুটি যুদ্ধবিমানবাহী জাহাজ। এই প্রসঙ্গে শীর্ষ এক মার্কিন সেনা আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘বিশ্বশান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এবং এশিয়ায় আমাদের বন্ধু রাষ্ট্রগুলোকে পাশে থাকার বার্তা দিতেই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ যদিও তিনি বলেছেন চিনের সামরিক অনুশীলনের পাল্টা দেওয়ার জন্য এই পদক্ষেপ নেয়নি আমেরিকা।

প্রসঙ্গত, চিন গত সপ্তাহেই জানিয়েছিল যে সাউথ চায়না সি’তে তারা সামরিক অনুশীলন করবে। সেই মতো ১ জুলাই থেকে পাঁচদিন ব্যাপী এই অনুশীলন চলছে। এটি হচ্ছে পরিসেল দ্বীপের কাছে, যা নিয়ে চিন ও ভিয়েতনামের মধ্যে দ্বন্দ্ব চলছে। সেখানে এই সামরিক অনুশীলন করার বিরোধিতা শুরু থেকেই করে এসেছে ভিয়েতনাম ও ফিলিপিন্স। একই ভাবে আপত্তি জানিয়েছিল আমেরিকাও।

তবে ঠিক কোথায় আমেরিকা ওই এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার পাঠিয়েছে, সেটি স্পষ্ট নয়। তবে চিন সাগরে ওই দুটি এয়ারক্রাফট ক্যারিয়ার ও আরও চারটি যুদ্ধ জাহাজ নিয়ে সামরিক অনুশীলন করবে মার্কিন নৌসেনাও। প্রসঙ্গত, দক্ষিণ চিন সাগর নিয়ে একাধিক দেশের মধ্যে দ্বন্দ্ব অনেকদিনের। প্রতিবছর এই সাগরপথে তিন ট্রিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য হয়। চিন একাই সাগরের ৯০ শতাংশ এলাকা তাদের বলে দাবি করে। যদিও এই সাগরে তাদেরও অধিকার আছে বলে দাবি ব্রুনেই, মালয়েশিয়া, ফিলিপিন্স, তাইওয়ান ও ভিয়েতনাম।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here