মহানগর ওয়েবডেস্ক: চিনা আগ্রাসন নীতির জেরে ইতিমধ্যেই উত্তাল উত্তর-পূর্বের সীমান্ত। উত্তেজনামূলক এহেন পরিস্থিতির মাঝেই সেনার হাতে এল আরও পাঁচটি অত্যাধুনিক সামরিক অ্যাপাচে হেলিকপ্টার। যার ফলে এই মুহূর্তে ভারতীয় বায়ুসেনার কাছে ২২ টি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার রণক্ষেত্রে নামার জন্য পুরোদমে প্রস্তুত। শুধু অ্যাপাচে নয়, ভারতীয় বায়ুসেনাকে ডেলিভারি করা হয়েছে চিনুক হেলিকপ্টারও।

পূর্ব চুক্তি অনুসারে মার্কিন কোম্পানি বোয়িং-এর তরফে ২২ টি হেলিকপ্টারের মধ্যে শেষ পাঁচটি হেলিকপ্টার বায়ু সেনার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে জুন মাসেই। বোয়িং-এর তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ২২ টি অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টারের মধ্যে শেষ পাঁচটি হেলিকপ্টার হিন্ডন এয়ারবেশে বায়ু সেনার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। একইভাবে চিনুক হেলিকপ্টারের ডেলিভারি করা হয়েছে মার্চ মাসে।

প্রসঙ্গত, গত বছর সেপ্টেম্বর মাসে প্রথম ধাপে অ্যাপাচে হেলিকপ্টার এসেছিল ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে। প্রথম দফায় দেওয়া হয়েছিল ৮ টি হেলিকপ্টার। ২০১৫ সালে মার্কিন কোম্পানি বোয়িং এর সঙ্গে চুক্তি করে ভারত। চুক্তি অনুযায়ী 22 টি অ্যাপাচে হেলিকপ্টার তুলে দেওয়ার কথা ছিল সেনাবাহিনীর হাতে। পাকিস্তান ও চিনের ওপর নজরদারি চালাতে পঞ্জাবের পাঠানকোট ও জোরহাট এয়ারবেশে মোতায়েন করা হয়েছিল এই অত্যাধুনিক সামরিক হেলিকপ্টারগুলিকে।

প্রসঙ্গত, অ্যাপাচে হেলিকপ্টারকে বিশ্বের মধ্যে সেরা সামরিক হেলিকপ্টার হিসেবে মান্যতা দেওয়া হয়। এই অত্যাধুনিক সামরিক হেলিকপ্টার মূলত পাহাড়ি এলাকায় যুদ্ধক্ষেত্রের জন্য বিশেষভাবে সক্ষম। মার্কিন সেনা এটি ব্যবহার করত আফগানিস্তানের উঁচু পার্বত্য এলাকায় তালিবানের বিরুদ্ধে। বর্তমানে অ্যাপাচে হেলিকপ্টার লাদাকে ভারতীয় বায়ুসেনার অন্যতম অঙ্গ হিসেবে ব্যবহৃত হয়। পাশাপাশি ভারতীয় সেনা চিনুককেও নিজেদের দলের অংশভুক্ত করে নিয়েছে। যাতে রয়েছে অ্যান্টি ট্যাংক মিসাইল। পাশাপাশি যুদ্ধক্ষেত্রে কঠিন পরিস্থিতিতে আকাশে উড়তে বিশেষভাবে দক্ষ অত্যাধুনিক এই হেলিকপ্টার।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here