kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের দোমারিয়া লোকসভা কেন্দ্রে রবিবার লোকসভা নির্বাচন হয়ে গেল৷ তবে তাতে অংশ নিল না সাংলাদ্বীপ গ্রামবাসীরা৷ দিনভর বহু চেষ্টা করেও গ্রামের সাড়ে পাঁচশ ভোটারকে বুথমুখী করতে পারল না ভোটকর্মীরা৷ এমনকী প্রশাসনের অনুরোধও রাখল না এই গ্রাম৷

কেন সাংলাদ্বীপ ভোট বয়কট করল? 

ভোট যায়, আসে৷ তবে সাংলাদ্বীপের কোনও উন্নতি হয় না৷ বেহাল সড়ক ব্যবস্তা নিয়ে সরব হয়েও কোনও লাভ হয়নি এই গ্রামের৷ এখানে উন্নয়ন থমকে গেছে৷ স্বচ্ছ ভারত এখানে বিরাট তামাশা৷ ‘সব কা সাথ, সবকা বিকাশ’- প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর এই স্লোগান এখানে পৌঁছায়নি৷ ডিজিটাল ইন্ডিয়া জানে না সাংলা দ্বীপ৷ বার বার প্রশাসনকে আবেদন করে কিছু লাভ হয়নি৷ তাই ভোট বয়কটের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সাংলাদ্বীপের সাড়ে পাঁচশ ভোটার৷ এখানকার স্থানীয় প্রাথমিক বিদালয়ে যথারীতি সকাল থেকে নির্বাচন করাতে ভোটকর্মী ও পুলিশের উপস্থিত ছিলেন৷ তবে সকাল থেকে রাত আটটা পর্যন্ত এখানে একটিও ভোট পড়েনি৷ এই বুথের দায়িত্বপ্রাপ্ত উমেশ নিগম জানান, ভোট দেওয়ার জন্য আমর গ্রামের দোরে দোরে ঘুরেছি৷ তবে কোনওভাবেই নির্বাচন দিতে কাউকেই রাজী করাতে পারিনি৷

শুধু কী বেহাল রাস্তাঘাটেরর জন্য ভোট বয়কট করল সাংলাদ্বীপবাসী? প্রতিবছর পাশের নদী গ্রামেক ভাসায়৷ হয় বন্যা৷ তবে তার জন্য সরকারের পক্ষে কিছুই করা হয়নি ৷ এমন অভিযোগ জানালেন ওই গ্রামের বাসিন্দা কানু যাদব৷ আর এক বাসিন্দা মুর্তি যাদবের সোজা কথা, ২০২২ সালে বিধানসভা ভোট হয়তো দেব , তবে লোকসভা ভোট এবার কিছুতেই দেবো না৷ তাঁর অভিযোগ,প্রতি বছর নদী আমাদের প্রবল ক্ষতি করে৷ সেইসময় আমরা পুরো মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ি৷ বাড়ির বাইরে কেউ বের হতে পারে না বলে জানান তিনি৷ জল-বন্দী হয়ে থাকতে হয় সাংলার বানভাসিদের৷ তাঁর কথায় সেইসময় যাবতীয় যাওয়া -আসা বন্ধ হয়ে যায়৷ এমনকী তখন অসুস্থ হলেও রোগীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়াও সম্ভব হয় না৷ উন্নয়েন কোনও আঁচই এখনও পর্যন্ত সাংলা দ্বীপে এসে পৌঁছায়নি৷ তাই গ্রামবাসীদের কাছে ভোট উৎসব নয়, শোক৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here