kolkata bengali news

বিশেষ প্রতিবেদক, মেদিনীপুর: রাজ্যে প্রথম দফা নির্বাচন শুরুর পর আলিপুরদুয়ার ও কোচবিহার জেলা থেকে একের পর এক বিক্ষিপ্ত অশান্তির খবর মিলিছে৷ তবে রাজ্যে এখনও ৬ দফা নির্বাচন বাকি৷ আগামি দিনে যেসব কেন্দ্রে নির্বাচন বাকি সেইসব কেন্দ্রের প্রার্থীরা শেষ মুহুর্তের প্রচারে ব্যস্ত৷ এরই মাঝে তৃণমূল কর্মীদের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হল ঘাটাল লোকসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকে, এমনটাই অভিযোগ প্রাক্তন আইপিএস-এর৷ তাঁকে ঘিরে কালো পতাকা দেখিয়ে বিক্ষোভ দেখানোর অভিযোগ উঠেছে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে৷ জশোড়া বাজার থেকে মাইসোরা যাওয়ার পথে গোপাল হাজরা মড়োরের কাছে বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয় ভারতী ঘোষকে।

‘গো ব্যাক ভারতী’ বিক্ষোভকারীরা এই একটাই শ্লোগান দিতে থাকেন৷ ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দিলেও, এই ঘটনার প্রতিবাদে পুলিশি গাফিলতি তুলে বিজেপি সমর্থকদের নিয়ে রাস্তায় বসে অবরোধ করেন খোদ ভারতী ঘোষ৷ বিক্ষোভের জেরে ব্যাপক যানজট সৃষ্টি হয়।যানজট মুক্ত করতে হিমসিম খেতে হয় পুলিশ প্রশাসনকে। গোটা ঘটনায় তৃণমূলের দিকে অভিযোগ তোলা হলেও অভিযোগ অস্বীকার করেছে শাসকদলের কর্মীরা৷ এদিন নিরাপত্তার দাবিতে গোপাল হাজরার কাছে জোশড়া মাইসোরা গ্রামীন সড়ক যোজনার রাস্তায় বসে অবরোধ করেন তিনি৷ প্রসঙ্গত, এর আগেও ভারতী ঘোষের গাড়িতে ভাঙচুর চালানোর অভিযোগ ওঠে তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে।

ভোটের প্রচার সেরে ঘাটাল ফেরার পথে তাঁর গাড়িতে ভাঙচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ জানিয়েছিলেন বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষ। তাঁর পোলিং এজেন্টকে মারধর করা হয়েছে বলেও অভিযোগ জানিয়েছিলেন তিনি। এই ঘটনায় পশ্চিম মেদিনীপুরের দাসপুর থানায় অজ্ঞাত পরিচয় তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছিলেন ভারতী। জানা গিয়েছিল, শনিবার সন্ধ্যায় প্রচার সেরে সরবেরিয়া থেকে ঘাটাল ফেরার পথে তাঁর গাড়িতে কয়েকজন তৃণমূল কর্মী ইঁট ছোড়ে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন ভারতী। শুধু তাই নয়, ভারতীর পোলিং এজেন্ট অয়ন দণ্ডপাটকে মারধর করা হয়েছিল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here