kolkata news
Highlights

  • ফের রক্ষীবিহীন এটিএমের ভল্ট ভেঙে টাকা লুটের ঘটনা ঘটল হাওড়ায়
  • লিলুয়ার মধ্য খালিয়া অঞ্চলের ওই একটি বেসরকারি ব্যাঙ্কের এটিএম গ্যাস কাটার দিয়ে কেটে টাকা লুট করা হয়
  • তবে কত টাকা চুরি গেছে, তা এখনও জানা যায়নি


নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া:
ফের রক্ষীবিহীন এটিএমের ভল্ট ভেঙে টাকা লুটের ঘটনা ঘটল হাওড়ায়। লিলুয়ার মধ্য খালিয়া অঞ্চলের ওই একটি বেসরকারি ব্যাঙ্কের এটিএম গ্যাস কাটার দিয়ে কেটে টাকা লুট করা হয় বলে জানা গেছে। তবে কত টাকা চুরি গেছে, তা এখনও জানা যায়নি। ওই বেসরকারি ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে পুলিশের তরফ থেকে। এটিএম পরীক্ষা করে দেখার পরই পরিষ্কার হবে ভল্ট থেকে ঠিক কত টাকা খোওয়া গিয়েছে।

উল্লেখ্য, ওই এটিএমের দোতলায় থাকেন বাড়ির মালিক। তিনি জানিয়েছেন, সম্ভবত শুক্রবার অধিক রাতে ঘটনাটি ঘটেছে। ওই এটিএমে কোনও রক্ষী থাকে না। সেই সুযোগকে কাজে লাগিয়েই দুষ্কৃতীরা গ্যাস কাটার দিয়ে ভল্ট কেটে টাকা লুট করে নিয়ে পালায়। লিলুয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত শুরু করেছে।

উল্লেখ্য, এর আগেও লিলুয়াতে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের এটিএম ভেঙে প্রায় ২৯ লক্ষ টাকা লুট হয়েছিল। আন্দুলে ৩টি এটিএম ভেঙে লুট হয়েছিল প্রায় ৪৫ লাখ টাকা। এবার লিলুয়ার খালিয়া মোড়ে অ্যাক্সিস ব্যাঙ্কের এটিএম ভেঙে টাকা লুটের ঘটনা ঘটল। এদিকে লিলুয়া এটিএম থেকে টাকা লুট প্রসঙ্গে হাওড়া সিটি পুলিশের ডিসি নর্থ অংশুমান সাহা বলেন, ইতিমধ্যেই এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। লিলুয়া থানার পাশাপাশি হাওড়া সিটি পুলিশের গোয়েন্দারা ঘটনার তদন্ত করছেন। বেশ কিছু তথ্য-প্রমাণ ইতিমধ্যেই জোগাড় হয়েছে। এটিএমের ভেতর এবং বাইরেই শুধু নয়, পাশাপাশি নিকটবর্তী এবং দূরবর্তী এলাকায় বিভিন্ন সিসিটিভির ফুটেজ জোগাড় করা হচ্ছে।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, এই এটিএম লুটের ঘটনায় তিন থেকে চারজন যুক্ত ছিল। এরা চারচাকা গাড়িতে করে এসেছিল। একজন গাড়ি চালাচ্ছিল। বাইরে একজন রাস্তায় দাঁড়িয়ে পাহারা দিচ্ছিল। এবং এটিএমের ভেতরে ঢুকেছিল দু’জন। এদের শনাক্ত করার চেষ্টা হচ্ছে। পরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। এর আগে গত কয়েক মাসে হাওড়ায় যে তিন-চারটি এটিএম থেকে টাকা লুটের ঘটনা ঘটেছিল, তার সমস্ত তথ্য জোগাড় করে তাতে কারা যুক্ত ছিল তাদের বিষয়ে তথ্যাদি সংগ্রহ করে এই ঘটনার সঙ্গে তারা যুক্ত ছিল কিনা সেগুলি সবই দেখা হচ্ছে। এই ঘটনার খুব তাড়াতাড়ি কিনারা হবে বলেই আমরা মনে করছি। প্রাথমিক ভাবে ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, ২১লক্ষ ২৪ হাজার ৫০০ টাকার মতো এটিএম থেকে লুট হয়েছে। দুষ্কৃতীদের খোঁজ চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here