ডেস্ক: দেশের প্রধান বিচাফ্রপতির ইম্পিচমেন্ট চেয়ে শুক্রবার একযোগে সাংসদদের সই করা প্রস্তাব জমা দেওয়া হয় উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডুর কাছে। সোমবার আইনি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনার পর সেই ইমপিচমেন্টের প্রস্তাব খারিজ করে দিলেন দেশের উপরাষ্ট্রপতি। ফলস্বরুপ কিছুটা হলেও স্বস্তির হাসি হাস্লেন দেশের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র।

সম্প্রতি, সুপ্রিমকোর্টের ৬ বিচারপতি দেশের প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলে সংবাদ মাধ্যমের সামনে সরব হয়েছিলেন। ভারতের ইতিহাসে প্রথমবার ঘটা সেই ঘটনা সাড়া ফেলে দিয়েছিল দেশজুড়ে। এরপর একযোগে দেশের প্রধানবিচারপতির বিরুদ্ধে ইম্পিচমেন্ট চেয়ে পদক্ষেপ শুরু করে বিরোধীরা। কংগ্রেস, সিপিএম, সিপিআই, এনসিপি, সপা, বসপা ও মুসলিম লিগের ৬৪ জন নিজেদের সই করা ইম্পিচমেন্ট প্রস্তাব শুক্রবার তুলে দেন দেশের উপরাষ্ট্রপতির হাতে। কংগ্রেসের দাবি ছিল, যতদিন না দেশের প্রধানবিচারপতি অভিযোগমুক্ত হচ্ছেন ততদিন প্রধান বিচারপতির পদ থেকে সরে দাঁড়ানো উচিৎ দীপক মিশ্রের। এরপর সোমবার আইনি বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে আলোচনার পর বিরোধীদের সেই প্রস্তাব সম্পুর্ণ খারিজ করে দিলেন দেশের উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডু।

তবে দেশের উপরাষ্ট্রপতি এই প্রসাব খারিজ করে দিলেও পিছু হঠতে নারাজ কংগ্রেস। কংগ্রেসের তরফে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল, উপরাষ্ট্রপতি যদি এই প্রস্তাব খারিজ করে দেন তবে একই দাবিতে সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হবেন তাঁরা। এদিন প্রস্তাব খারিজ হয়ের পর কংগ্রেসের তরফে জানানো হয়েছে, আইন বিশেষজ্ঞও ও বিরোধী দলগুলির সঙ্গে কথা বলে নিজেদের পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করবেন তাঁরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here