ডেস্ক: আদালতে দিয়ে বয়ান পরিবর্তন করার শর্তে ধর্ষকদের কাছ থেকে ঘুষ নিয়েছিল বাবা-মা৷ সেই ঘুষের পাঁচ লাখ টাকা নিয়ে সটান থানায় হাজির হয়ে নিজের বাবা-মা’র বিরুদ্ধেই লিখিত অভিযোগ করে আসলেন দিল্লির অপর এক নির্ভয়া৷

বছর পনেরোর নির্ভয়া গণধর্ষিতা হয়েছিলেন গতবছর৷ অভিযোগ, নয়ডা, গাজিয়াবাদের নানা জায়গায় নিয়ে গিয়ে দুই ব্যক্তি এক সপ্তাহ ধরে তাকে পালা করে ধর্ষণ করে৷ সপ্তাহখানেক বাদে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়৷ বাড়ি ফিরে দুই অভিযুক্তের বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় ধর্ষণের অভিযোগ জানায় নির্যাতিতা৷ মামলা চলাকালীন অভিযুক্তরা লোকজন পাঠিয়ে ধর্ষণের মামলা তুলে নেওয়ার কথা বলে অভিযোগকারিণীর বাবা মাকে। তার বদলে তাদের ২০ লাখ টাকা ঘুষের টোপ দেওয়া হয়৷ নির্যাতিতার বাবা-মা রাজি হলে আগাম তাদের পাঁচ লাখ টাকা দিয়ে দেয় অভিযুক্তরা৷ তবে নির্যাতিতা ওই তরুণী টাকার বদলে আপস করে নিতে রাজি ছিলেন না৷ অভিযোগ, বাবা-মা তার ওপর চাপ দিচ্ছিল বিষয়টি টাকার বদলে মিটিয়ে নেওয়ার৷ এমিয়ে বাড়িতে নিত্য অশান্তি লেগে থাকত বাবা-মায়ের সঙ্গে৷ অবশেষে চলতি মাসের ১০ তারিখ তার বাবা-মা আদালতে গেলে মেয়েটি বিছানার তলা থেকে ঘুষের টাকা নিয়ে সোজা চলে আসে থানায়।

অভিযোগকারিণীর বাবা মায়ের বিরুদ্ধে অপ্রাপ্তবয়স্কদের ন্যায়বিচার আইন ও অপরাধমূলক উদ্দেশে ভয় দেখানোর মামলা রুজু করেছে পুলিশ৷ তাঁদের বিরুদ্ধে মিথ্যে প্রমাণ দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া আর অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হয়েছে। মেয়েটির মাকে গ্রেফতার করা হলেও গা ঢাকা দিয়েছেন বাবা। যারা তাঁদের টাকা দিয়ে বোঝাপড়ার চেষ্টা করছিল তাদেরও ধরার চেষ্টা চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here