ডেস্ক: দক্ষিণের পর্ণ তারকা সিল্ক স্মিথার বায়োপিকে অভিনয় করে বলিউডে একটি নতুন ট্রেন্ড শুরু করেন বিদ্যা বালন। তাঁর অভিনীত ‘দ্য ডার্টি পিকচার’ -এর মাধ্যমে নিজের হারানো খেতাব ফিরে পান বিদ্যা। সেই ২০১১-এর হিট সিনেমা নিয়ে আবারও স্মৃতিচারণায় ব্যস্ত ছিলেন বিদ্যা।

এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, ”আমি যখন ডার্টি পিকচার বড়পর্দায় দেখানো হয়, মানুষ এই সিনেমাকে দেখে বলেছিল, এটি শুধুমাত্র যৌনতা মূলক সিনেমা। নিজের কেরিয়ার বাঁচানোর জন্য শরীর দেখাতে ব্যস্ত ছিলেন। এই ধরণের কথাও আমাকে শুনতে হয়। তখন আমি বলি ঠিক আছে। যদি আমার শরীর দেখে, যৌনতার জন্য সিনেমাহলে মানুষ আমার সিনেমা দেখতে যায় তাতে আমি রাজি। অন্তত থিয়েটার থেকে বেড়িয়ে গল্পটা জানতে পারবে তো মানুষ।” পাশাপাশি বিদ্যা বালন জানান যৌনতা নির্ভর সিনেমাই বলিউডে বেশি চলে। এই বিষয়ে বিদ্যা জানান, ”শরীর হোক কিংবা যৌনতা, আমাদের শুরুটা হয় এই জায়গা থেকেই। এই ঘটনাগুলি আমাদের বেশি আকর্ষিত করে।”

 

কিছুদিন আগেই বলিউডে মিটু মুভমেন্টকে নিয়ে একটি প্যানেল ডিসকাশন বসে। সেখানে বলিউডের বিভিন্ন মহিলা পরিচালক কিংবা অভিনেত্রী উপস্থিত ছিলেন। সেই সম্পর্কে তিনি জানান, ”আমরা চেয়েছিলাম এই প্যানেলে কোনও পুরুষ যাতে না থাকে। কারণ ঘটনাটি পুরোটাই মহিলাকেন্দ্রিক। তাই এই প্যানেলে আমাদের আলোচনা করার কথাই উচিত। আমি আশা করি আমাদের নূন্যতম সম্মান দেবেন তাঁরা। মিটু ইস্যুতে যতই নাম থাকুক ছেলেদের ঘটনাটি আলোচনা করতে হবে আমাদের মেয়েদেরই।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here