news bengali kolkata

নিজস্ব প্রতিবেদক, পশ্চিম মেদিনীপুর: বনদফতরের নিষেধাজ্ঞা উড়িয়ে আবারও জঙ্গলে আগুন। পশ্চিম মেদিনীপুর জেলা জুড়ে বারবার একাধিক বনে আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটেই চলেছে। দু-একবার বনকর্মী ও হুলা পার্টির সদস্যরা গিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হলেও বিভিন্ন সময়ে যেতে হয়েছে দমকলকেও। পুলিশ ও গ্রেফতারের ভয় দেখিয়েও লাভ হয়নি তেমন। রবিবার বিকেলেও জঙ্গলে আবারও আগুন লাগানো হল। শালবনির ভাদুতলা জঙ্গলের প্রায় চার হেক্টর জমি পুড়ে নষ্ট হয়ে গেল। লাগানো হল নতুন গাছ। শিকার ও কাঠ চুরি করতেই এই আগুন লাগানো হয়েছে বলে দাবি বন দফতরের।

রবিবার বিকেলে জঙ্গলে আগুন লাগানোর খবর পেয়েছিল বনদফতর। কর্মীরা গিয়ে আগুন নিভিয়েও আসে। সন্ধ্যে নাগাদ পুনরায় আগুন ছড়িয়ে পড়ার খবর আসে বনদফতরে। দ্বিতীয়বারের আগুন অনেক বেশি ভয়ানক হয়ে উঠেছিল বলে জানানো হয়েছে বনদফতরের পক্ষ থেকে। জঙ্গলের অনেকটা অংশ পুড়ে যাওয়ার ফলে ওই আগুন ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের সামনে চলে আসে। পরিস্থিতি সামাল দিতে মেদিনীপুর থেকে আনা হয় দমকলের একটি ইঞ্জিন। বেশ কিছুক্ষণের চেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়।

বনদফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রবিবার রাতের আগুনে জঙ্গলের ৪ হেক্টর জমি জুড়ে লাগানো চারা গাছ নষ্ট হয়ে গিয়েছে। ওষধি গাছের চারাও লাগানো হয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। জঙ্গলের মধ্যে বিশেষ প্রজাতির ঘাসও ছিল। বনদফতরের দাবি, শিকার ও কাঠ সংগ্রহের উদ্দেশ্য নিয়েই পরিকল্পিতভাবে আগুন লাগানো হয়েছে। সচেতন ও সাবধান করেও কোনো লাভ হয়নি বলে দাবি। এরপর আরও কড়া পদক্ষেপের কথা ভাবছে বন্দফতর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here