kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: আরও একটি পালক যুক্ত হল অধিনায়ক কোহলির মুকুটে। সোমবার রাঁচি টেস্টের তৃতীয় দিন দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১৬২ রানে প্রথম ইনিংসে অল আউট করে ভারত। তারপরেই দক্ষিণ আফ্রিকাকে ফলো অন করানোর সিদ্ধান্ত নেন অধিনায়ক কোহলি। আর এর মধ্য দিয়েই মহম্মদ আজহারউদ্দিনকে টপকে ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি বার বিপক্ষকে ফলো অন করানোর কৃতিত্ব অর্জন করলেন কোহলি। এই নিয়ে অষ্টমবার বিপক্ষকে ফলো অন করালেন কোহলি। আজহারউদ্দিন করিয়েছিলেন ৭ বার, ধোনি ও সৌরভ করিয়েছিলেন যথাক্রমে ৫ ও ৪ বার।

এছাড়া প্রথম ইনিংসে একাই ৩ উইকেট নেন উমেশ যাদব। ওয়েস্ট ইন্ডিজের কোর্টনি ওয়ালসের পর উমেশই দ্বিতীয় বোলার যিনি ঘরের মাঠে পরপর পাঁচ ইনিংসে কমপক্ষে ৩টি উইকেট নিলেন। আবার, প্রথম ইনিংসে ৩৩৫ রানের লিড নেয় ভারত। ২০০৯-১০ সালে কলকাতায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ৩৪৭ রানের লিডের পর এটাই প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে ভারতের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ লিড।

উল্লেখ্য, তৃতীয়দিন আট উইকেট ও ৯ রান পুঁজি নিয়ে তৃতীয় দিন ব্যাট কোর্টে নামেন হামজা ও ডু’প্লেসি। কিন্তু সকালে প্রথম ঘণ্টাতেই উমেশের বল নাড়িয়ে দেয় ফাফের (১) উইকেট। যদিও এরপর কিছুটা প্রতিরোধ গড়েন বাভুমা ও হামজা। দুইজনে মিলে ৯১ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন। এরপরেই স্পিনারদের নিয়ে আসেন কোহলি, আর তাতেই কেল্লা ফতেহ। জাদেজা ও নাদিমের ঘূর্ণিতে বোকা বনে ফিরে যান হামজা (৬২), বাভুমা (৩২), ক্লাসেন (৬)। শেষদিকে জর্জ লিন্ডে বেশ একটু লড়াই করলেও ৩৭ রানে তাঁকে ফেরান উমেশ। এরপর রাবাডা (০), পিডেট (৪) নর্থজে (৪) শুধু আয়ারাম গ্যায়ারাম। ৫৭ তম ওভারে ১৬২ রানেই শেষ হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংস।

ফলো অন করতে নেমেও সেই ব্যাটিং ধস অব্যহত থাকে দক্ষিণ আফ্রিকার। মাত্র ৩৬ রানের মধ্যেই ৫ উইকেট হারিয়ে ধুকতে শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকা। ডি’কক (৫), হামজা (০), ডু’প্লেসি (৪), বাভুমা (০) ও ক্লাসেন (৫) সকলেই সাজঘরে ফেরার তাড়ায় ছিলেন। গোদের ওপর বিষফোঁড়ার মতো উমেশের বলে চোট পেয়ে মাঠের বাইরে চলে যান ডিন এলগারও (১৬*)। মাথায় আঘাত লাগায় কনকাসন টেস্ট হয় তাঁর। তাতে ফলাফল আশানুরূপ না হওয়ায় টেস্ট থেকেই ছিটকে যান তিনি। তাঁর বদলে দলে আসেন ডে ব্রুইন। দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যাটিংয়ের যা হাল, আজকেই না বাকি পাঁচ উইকেটও খুইয়ে ফেলে অতিথিরা।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here