মহানগর ওয়েবডেস্ক: তিন বছর হলো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক করেছেন যুজবেন্দ্র চাহাল। হরিয়ানার ডান হাতি লেগ ব্রেক বোলার বাইশ গজে নিজের আলাদা একটা পরিচিতি বানিয়ে নিয়েছেন।

কুলদীপ যাদবের সঙ্গে জুটি বেঁধে বিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের ঘুম ছুটিয়েছেন চাহাল। দেশের জার্সিতে ২০ ও ৫০ ওভারের সংস্করণে কুলদীপ- চাহালের ‘কুলচা’ জুটি এককথায় অনস্বীকার্য।

ক্রিকেটের বাইরেও চাহালের জনপ্রিয়তা রয়েছে আরও দু’টি জায়গায়। বিসিসিআইয়ের হয়ে চাহাল টিভিতে তাঁর নেওয়া ক্রিকেটারদের সরস ইন্টারভিউ ফ্যানেদের মনে আলাদা জায়গা করে নিয়েছে। এ ছাড়াও চাহাল এখন ভীষণ জনপ্রিয় টিকটকে। এই চিনা ভিডিও শেয়ারিং সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে ৪.৪ মিলিয়ন মানুষ ফলো করে চাহালকে। দেখতে গেলে তিনি ভারতের টিকটক স্টার।

নেচে গেয়ে চাহাল টিকটিক মাতিয়ে রেখেছেন, শুধু একাই তিনি অ্যাক্ট করেন না, পরিবারের সদস্যদেরও সঙ্গে নিয়েছেন। চাহালের মজাদার ভিডিওগুলো অনেকের কাছেই বিরক্তিকর। সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলও হন তিনি। তৈরি হয় মিম। আর চাহালের এইসব কাণ্ড কারখানা দেখে রীতিমতো হতাশ টিম ইন্ডিয়ার ক্যাপ্টেন বিরাট কোহলি ও টি-২০ ক্রিকেটের রাজা ক্রিস গেইল।

এবি ডিভিলিয়ার্সের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভে এসেছিলেন কোহলি। সেখানেও ওঠে চাহালের প্রসঙ্গ। ভারত অধিনায়ক এবিডিকে বলেন, “আমার চাহালকে দেখে বিশ্বাস হয় না যে, ওর ২৯ বছর বয়স। তারওপর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে এসব কী করে করে! তুমি টিকটিকে গিয়ে ওর ভিডিওগুলো দেখো একবার। পাক্কা ভাঁড় তৈরি হয়েছে।

অন্যদিকে গেইল আবার চাহালকেই মুখের ওপর লাইভে দু’কথা শুনিয়ে দিয়েছেন। ক্যারিবিয়ান দৈত্য বলেন, “চাহাল তোমাকে দেখে আমরা ক্লান্ত। তুমি সোশ্যাল মিডিয়া থেকে এক্ষুণি বেরিয়ে যাও। অত্যন্ত বিরক্তিকর তুমি। তোমাকে আর জীবনে দেখতে চাই না। আমি তোমায় ব্লক করছি। টিকটককেও বলব তোমায় ব্লক করতে।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here