mamata-bibek

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একদিকে প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার একটি ছবিতে মমতার মুখ বসিয়ে গ্রেফতার হয়েছেন এক বিজেপি নেত্রী প্রিয়াঙ্কা শর্মা, এর পাশাপাশি মঙ্গলবার অমিত শাহের র‍্যালিকে ঘিরে উতপ্ত বাংলা। এই দুই ইস্যুকে হাতিয়ার করে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণের নিশানা বানালেন বলি অভিনেতা বিবেক ওবেরয়। শুধু আক্রমণ নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ইরাকের স্বৈরাচারী শাসক সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গেও তুলনা করলেন তিনি।

মঙ্গলবার রাতে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার পাশাপাশি অমিত শাহের র‍্যালির উপর হামলার জন্য মমতার দিকে আঙুল তুলে এক টুইটে এদিন বিবেক লেখেন, ‘আমি বুঝতে পারছি না, একজন সম্মানীয় মহিলা যাকে ‘দিদি’ বলে সম্বোধন করা হয় ইরাকের স্বৈরাচারী শাসক সাদ্দাম হোসেনের মতো ব্যবহার করছেন? বাংলার গণতন্ত্র এই একনায়ক দিদির শাসনে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করেছে।’ এরপরই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মিম বানিয়ে গ্রেফতার হওয়া প্রিয়াঙ্কা শর্মা ও বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া তাজিন্দর বাগ্গার গ্রেফতারি নিয়ে সরব হয়ে তিনি বলেন, ‘এই দিদিগিরি চলবে না।’


উল্লেখ্য, মঙ্গলবার কলকাতায় অমিত শাহের র‍্যালিকে ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় ও বিদ্যাসাগর কলেজ। বিজেপির কর্মী সমর্থকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে এই দুই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হামলা চালানোর। এরপর বিদ্যাসাগর কলেজে ভাঙা হয় বিদ্যাসাগরের মূর্তি। আর সেই মূর্তি ভাঙা নিয়েই চরমে উঠেছে রাজনীতি। অমিত শাহ দাবি করেছেন, সেই সময় কলেজের গেট বন্ধ ছিল তাহলে কলেজের ভিতরে মূর্তি ভাঙল কে? এদিকে মূর্তি ভাঙার প্রমাণ স্বরুপ এক ভিডিও প্রকাশ করেছে তৃণমূল। মূর্তি ভাঙার জেরে গ্রেফতার করা হয়েছে একাধিক বিজেপি সমর্থককে। তাঁর মধ্যে রয়েছেন বিজেপি নেতা তাজিন্দর বাগ্গাও। সেই ইস্যুকে হাতিয়ার করে এদিন সরব হলেন বিবেক।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here