মহানগর ওয়েবডেস্ক: ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাশাপাশি বিশ্বশান্তিতে ভ্লাদিমির পুতিনের অবদানও কিছু কম নয়। ঠিক এমনই দাবি তুলে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত করা হল রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের নাম। সম্প্রতি রাশিয়ার লেখক সের্গেই কোমকভের নেতৃত্বে একটি লেখক সংগঠন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের নাম পাঠিয়েছে নোবেল কমিটির কাছে। তাদের দাবি গোটা বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইজরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু তুলনায় অনেক বেশি সক্রিয় ছিলেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন। সব মিলিয়ে ২০১৩ সালের পর দ্বিতীয় দফায় ফের নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য নাম পাঠানো হলো কমিউনিস্ট প্রেসিডেন্ট পুতিনের।

আগামী ৯ অক্টোবর চলতি বছরের নোবেল প্রাপকদের নাম ঘোষণা করতে চলেছে নোবেল কমিটি। ইতিমধ্যেই বিশ্বের বিভিন্ন স্থান থেকে নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য উঠে এসেছে একাধিক নাম। যে তালিকায় উল্লেখযোগ্য দুটি নাম ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ইজরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। সেই তালিকায় পুতিনের নামটিও তুলে ধরল রাশিয়ার একদল লেখক। অবশ্যই নির্দিষ্ট কিছু শর্ত মেনে যেকোনো ব্যক্তি যে কারও নাম নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য প্রস্তাব করতে পারে কমিটির কাছে। ইতিমধ্যেই এই পুরস্কারের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ৩০০ টিরও বেশি নাম মনোনীত হয়েছে।

উল্লেখ্য, সংযুক্ত আরব আমিরশাহী ও ইজরায়েলের মধ্যে দীর্ঘদিনের ঝগড়া মিটিয়ে চুক্তি করাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিয়েছিলেন ট্রাম্প। সেজন্য মার্কিন প্রেসিডেন্টের নাম নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত করেন নরওয়ের সাংসদ ক্রিশ্চিয়ান টাইব্রিং জিজেডে। পাশাপাশি সংযুক্ত আরব আমিরশাহী ও বাহরিনের সঙ্গে চুক্তি করানোর পর নোবেল শান্তি পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন ইজরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। তাঁর নাম মনোনীত করেন ইটালির নর্দান লিগ পার্টির সাংসদ পাওলো গ্রিমোলদি। আপাতত নোবেল শান্তি পুরস্কারের দাবীদার হিসেবে এই দুটি নামই উঠে আসছে সর্বাগ্রে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here