indelible-ink

ডেস্ক: যে কোনও নির্বাচনে ভোট দেওয়ার পর আঙুলের কালি নিয়ে একটা কৌতূহল থাকে জনগণের। যতই যা করুন না কেন, ওই কালি সহজে ওঠে না। মানুষের দেশের প্রতি দায়িত্বের প্রতিচ্ছবি হিসেবে থাকে ওই কালিই। কিন্তু এবারের লোকসভা নির্বাচনে এই কালি নিয়ে যত বিতর্ক শুরু হয়েছে। প্রথম দফার ভোটের পর সোশ্যাল মিডিয়ায় বহু নেটিজেনই এই কালি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। তাদের অভিযোগ, আধ থেকে এক ঘন্টার মধ্যেই উঠে যাচ্ছে এই কালি!

প্রথম দফার ভোট পর্বের পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ভোটের কালি নিয়ে বিভিন্ন ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে,

কালির ওপর জল অথবা স্পিরিট দিয়ে একটু চেপে মুছলেই সেই কালি উধাও হয়ে যাচ্ছে! মূলত ভোটের কালি দুই থেকে আড়াই মাস পর্যন্ত আঙুলে থাকে। তবে এবার তার স্থায়িত্ব হচ্ছে মাত্র আধ থেকে এক ঘন্টা।

এই খবর ছড়াতেই হইচই শুরু।

ভোটের কালিই বুঝিয়ে দেয় কেউ প্রকৃত ভোটার কিনা। নির্বাচনে যেন কোনও অস্বচ্ছতা না থাকে তা এই কালি দিয়েই বোঝা যায়। এখন এই কালি যদি তাড়াতাড়ি উঠে যায়, তাহলে ভোটদান প্রক্রিয়ায় অস্বচ্ছতা তৈরি হবে। প্রথম দফায় এমনিতেই ইভিএম বিভ্রাট নিয়ে সরব হয়েছেন বিজেপি বিরোধী দলের নেতারা। তারমধ্যে এই কালি বিভ্রাট সপ্তদশ নির্বাচনে অশনি সঙ্কেতই বয়ে নিয়ে আসছে।

ভোটের এই কালি বিভ্রাট নিয়ে যারা সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হয়েছে তাদের মধ্যে অনেক সাংবাদিকও রয়েছেন। তারা ভিডিও প্রকাশ করে ভোটের কালির এই বিভ্রাট তুলে ধরেছেন। তাদের সকলেরই দাবি, ভোট দিয়ে আসার পর বাড়িতে জল দিলেই বা অন্যকোনও তরল দিয়ে কালি মুছলেই উঠে যাচ্ছে কালি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here