আলেহান্দ্রো শুনছেন? সমর্থকদের ধৈর্যের বাঁধ কিন্তু ভাঙছে

0
415
kolkata bengali news

বিশেষ প্রতিবেদন: সোমবারের বিকালে পিয়ারলেসের বিরুদ্ধে লিগের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। সুযোগ ছিল মোহনবাগানকে সরিয়ে লিগের শীর্ষে উঠে আসার। কিন্তু সেই ম্যাচেও পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে গিয়ে জঘন্য ফুটবল ও পরিশেষে হার আলেহান্দ্রো বাহিনীর। আর তারপরে যা হল, তা অন্তত শেষ এক বছরে দেখেনি পাল্টে যাওয়া ইস্টবেঙ্গল।

এমনিতে কলকাতা লিগে দুই প্রধানের সমর্থকরাই চান দল প্রতি ম্যাচে জিতুক। আর এবার ইস্টবেঙ্গলের একশো বছর বলে সমর্থকদের প্রত্যাশাও একটু বেশি। কিন্তু কলকাতা লিগ ও দুরান্ড কাপকে প্রি সিজন বলে আগেই ঘোষণা করে দিয়েছেন আলেহান্দ্রো। ফলে সমর্থকদের আবেগের আগে তিনি স্থান দিয়েছেন তার পরীক্ষা নিরীক্ষাকে। প্রতি ম্যাচেই দলে সাত থেকে আটটি চেঞ্জ। ফলে সেট দল এখনও সেভাবে গড়ে ওঠেনি। আই লিগের কথা মাথায় রেখে অবশ্যই ভালো সিদ্ধান্ত।

কিন্তু আলেহান্দ্রো, আপনি বোধহয় ভুলে যাচ্ছেন লাল হলুদ সমর্থকরা এই কলকাতা লিগকেও সমানভাবেই গুরুত্ব দেয়। এতদিন দল হারলে প্রিয় ‘আলে স্যারের’ মুখ চেয়ে সেই হারের দুঃখ গলাদ্ধকরণ করে ফেলছিলেন তারা। কিন্তু আজ পিয়ারলেসের কাছে হারটা যেন কিছুতেই হজম হলো না তাদের। কারণ অবশ্যই, আগের দিন মোহনবাগানের জয়, এবং তাও কাদা মাঠে ভালো ফুটবল খেলে। ফলে আজ হারতেই কর্পোরেট ইস্টবেঙ্গলে একদিন যা হয়নি, তাই হল, তুমুল সমর্থক বিক্ষোভ। গ্যালারির একাংশ থেকে উঠল ‘গো ব্যাক’ স্লোগান। রেফারির পাশাপাশি আলেহান্দ্রো, মার্কোসের বাপ বাপান্ত চলল। মাঠে উড়ে এল বোতল, ইট। তা থামাতে গিয়ে চললো পুলিশের লাঠি। মাথা ফাটল, পা ভাঙল ফুটবল পাগল সমর্থকদের।

ম্যাচের শেষে অনেকেই ইস্টবেঙ্গল কোচের এই পরীক্ষা নিরীক্ষা নিয়ে প্রশ্ন তুলছিলেন। শুরু থেকে কেন নয় দলের সেরা অস্ত্র কোলাডো? একই প্রশ্ন পিয়ারলেস কোচ জহর দাসের গলাতেও। অবশ্য এই প্রশ্ন যদি আলেহান্দ্রোকে করা হয়, তিনি একটু রেগেই উত্তর দেন, তার দল, তিনি প্রধান কোচ, তিনি ভালোটা বেশি বুঝবেন। এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে অবশ্য দল যে খারাপ খেলেছে তা মানতে নারাজ স্প্যানিশ কোচ। বরং দোষ চাপালেন রেফারি, খারাপ মাঠের উপর। তার বিচারে মাঠ নাকি একেবারেই খেলার অযোগ্য (অথচ পিয়ারলেস যথেষ্ট ভালো খেলল), রেফারি খুব খারাপ ( এতে সহমতের জায়গা আছে) ইত্যাদি ইত্যাদি। সে আপনি কোচ, আপনি বলবেনই। কিন্তু একটা কথা আপনাকেও বলতে হয়, আপনি আপনার দিক থেকে কিছুটা ঠিকই। কাল আই লিগ জিতলে এই সমর্থকরাই আপনাকে মাথায় তুলে নাচবে। কিন্তু এটাও আপনাকে মনে রাখতে হবে, কলকাতা লিগটাও কিন্তু ইস্টবেঙ্গল জনতার চাই। এই কথাটি যত তাড়াতাড়ি বুঝবেন, ততই মঙ্গল। আপনার, আমার, সমর্থকদের, সবার।।।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here