মহানগর ওয়েবডেস্ক: তরুণ প্রতিভা পৃথ্বী শ-র মধ্যে বীরেন্দ্র শেহওয়াগকে খুঁজে পাচ্ছেন ওয়াসিম জাফর। ঘরোয়া ক্রিকেটে রাজা ও সদ্য উত্তরাখণ্ড রঞ্জি দলের হেড কোচ হিসেবে নিযুক্ত হওয়া জাফর। তিনি মনে করছেন, যে দক্ষতায় পৃথ্বী ক্রিকেট খেলেন তা নজফগড়ের নবাবের সঙ্গে তুলনীয়।

২০১৮ সালের অক্টোবরে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক করেন পৃথ্বী। অভিষেকেই রাজকোটে শতরান করে বার্তা দেন যে, আরও এক তারকার জন্ম হল ভারতীয় ক্রিকেটের মহাকাশে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সেদিন ১৩৪ রানেই ইনিংসের পর তাঁর সঙ্গে কিংবদন্তি শচীন তেন্ডুলকরের তুলনাও শুরু হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু চোট-আঘাত এবং ডোপিংয়ের কারণে পৃথ্বীর আর দেশের জার্সিতে খেলা হয় না অনেকদিন।

২০১৮-’১৯ মরসুমে অস্ট্রেলিয়া সফরের প্রস্তুতি ম্যাচে ফিল্ডিং করতে গিয়ে গোড়ালি মচকে যায় পৃথ্বীর। এরপর ডোপিংয়ের জন্য শৃঙ্খলাজনিত কারণে তিনি নির্বাসিত হন। যদিও বছরের গোড়ায় নিউজিল্যান্ড সফরে জাতীয় দলে ফেরেন ঠিকই। কিন্তু সেভাবে ছাপ রাখতে পারেননি।
ভারতীয় দলের প্রাক্তন ওপেনার জাফর আকাশ চোপড়ার ইউটিউব চ্যানেলে বলছেন, “পৃথ্বী স্পেশাল প্লেয়ার। এই নিয়ে কোনও সন্দেহ নেই। ও যেভাবে শট নেয়, ও যদি এগিয়ে যায় তাহলে ওর বীরেন্দ্র শেহওয়াগ হওয়ার ক্ষমতা আছে। ও একা যে কোনও আক্রমণ গুঁড়িয়ে দিতে পারে। কিন্তু আমার মনে হয় ওর কোথাও একটু নিজের খেলাটা আরও একটু বুঝতে হবে। ও নিউজিল্যান্ডের ফাঁদে পা দিয়ে দু’বার শর্ট ডেলিভারিতে আউট হয়েছিল।”

গত মার্চে সবরকমের ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নেন জাফর। ৪২ বছরের জাফর রঞ্জি ক্রিকেটের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রান শিকারীর (১২,o৩৮) পাশাপাশি সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরির মালিকও (৪০)। তিনিই একমাত্র ব্যাটসম্যান যিনি রঞ্জিতে প্রথম ১০, ১১ ০ ১২ হাজার রানের ক্লাবে নিজের নাম লেখান। দেশের জার্সিতে ৩১টি টেস্ট ও ২টি ওয়ানডে ম্যাচও খেলেছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here