মহানগর ওয়েবডেস্ক: তাঁর অভিষেক হয়েছিল শচীন টেন্ডুলকরের অধিনায়কত্বে। রাহুল দ্রাবিড়ের অধিনায়কত্বে সবথেকে বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন তিনি। তা সত্ত্বেও নিজের জীবনের সবচেয়ে সেরা অধিনায়ক হিসেবে সৌরভকেই বেছে নিলেন প্রাক্তন ভারতীয় ওপেনার ওয়াসিম জাফর। ‌

ভারতীয় টেস্ট ওপেনারদের মধ্যে ওয়াসিম জাফরের নাম অন্যতম উল্লেখযোগ্য। জাতীয় দলের জার্সিতে নিজের ছোট ক্যারিয়ারে মাত্র দুটি ওয়ানডে খেলেছিলেন তিনি। টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন ৩১টি। ভারতীয় দলের হয়ে দেশে এবং বিদেশের মাটিতে বেশকিছু অবিস্মরণীয় পারফরম্যান্স রয়েছে তাঁর। এহেন ওয়াসিম জাফর সবচেয়ে বেশি ১৫টি টেস্ট রাহুল দ্রাবিড়ের অধিনায়কত্বে খেলেছেন। কিন্তু তিনি মনে করেন ভারতের সেরা অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ই।

তবে দুর্ভাগ্যবশত সৌরভের অধিনায়কত্বে খেলে ব্যক্তিগতভাবে খুব একটা সফল হননি ওয়াসিম জাফর। সৌরভের নেতৃত্বে তিনি পাঁচ টেস্ট ম্যাচ খেলেছিলেন। পাঁচ টেস্টের মধ্যে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর ছিল ৮৬, এসেছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে। মোট ১৪৯ রান করেছিলেন তিনি পাঁচটি টেস্টে। একটি ক্রিকেট ওয়েবসাইটকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ওয়াসিম জাফর বলেছেন ‘সৌরভই হলেন সেই ব্যক্তি যে ২০০০ সালের পর এই দলটা তৈরি করেছিল। ওর মধ্যে সেই ক্ষমতাটা ছিল। জাহির, যুবরাজ, হরভজনের মত ছেলেদের দলে নেওয়ার পাশাপাশি শেহবাগকে ওপরে ব্যাট করতেপাঠানো, সর্বদা খেলোয়াড়দের সমর্থন করা এবং তাদের পাশে দাঁড়ানোর মানসিকতা ছিল সৌরভের।’

প্রকৃতপক্ষে ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের অবদান কোনওদিন ভোলার নয়। তিনি যখন দায়িত্ব নিয়েছিলেন তখন ম্যাচ ফিক্সিং কাণ্ডে জড়িত ছিল টিম ইন্ডিয়া। সেই পানাপুকুর থেকে তুলে একটা নতুন দল দেশবাসীকে উপহার দিয়েছিলেন সৌরভ। বেহালা রাজপুত্রকে নিয়ে কথা বলতে গেলে তাই আজও প্রাক্তনীরা সকলেই একবাক্যে স্বীকার করেন, সৌরভ যেভাবে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন, আর কেউ পারেননি। সেজন্য অধিনায়কত্বের বিচারে অনেকের কাছেই আজও সেরার সেরা সৌরভ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here