ডেস্ক: যোগদিবস পালন নিয়ে রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠীর সঙ্গে নয়া বিতর্ক সৃষ্টি রাজ্যের। এই বিতর্ক নিয়ে ফের রাজ্যপালের কড়া সমালোচনার পথে হাঁটলেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রাজ্যপালের সঙ্গে অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের দ্বন্দ্ব নতুন কোনও ঘটনা নয়। এর আগেও নানা বিষয় নিয়ে দু’পক্ষের মধ্যে মতবিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। এবার নতুন করে বিশ্ব যোগদিবস পালন নিয়ে শুরু হল সংঘাত।

জানা গিয়েছে, রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠী রাজ্যের সঙ্গে কোনও রকম পরামর্শ ছাড়াই বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের কাছে সরাসরি একটি চিঠি পাঠিয়ে সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়কে যোগদিবস পালনের নির্দেশনামা জারি করেছেন। এতেই বেজায় ক্ষেপেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী। পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বক্তব্য, রাজ্যকে কিছু না জানিয়ে এইভাবে রাজ্যপাল সরাসরি বিশ্ববিদ্যালয়কে কোনও নির্দেশ দিতে পারেন না। এটা তাঁর এক্তিয়ারের মধ্যে পড়ে না। এই নিয়েই প্রকাশ্যে রাজ্যপালের কড়া সমালোচনা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী। এরপর অবশ্য রাজভবনের তরফ থেকে কোনও পাল্টা প্রতিক্রিয়া আসেনি। সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা এই চিঠি পেয়েছেন। রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জানিয়েছেন, এই নির্দেশনামাতে যোগ দিবসের পাশাপাশি স্বামী বিবেকানন্দের জন্মদিন পালন করার কথাও বলা হয়েছে। শুধু তাই নয়, কিভাবে তা পালিত হল সেই নিয়েও পাল্টা রিপোর্ট রাজ্যপালের ভবনে পাঠাতে বলা হয়েছে। যাদবপুরের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস অবশ্য জানিয়েছেন তিনি এখনও কোনও চিঠি হাতে পাননি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি রাজ্যপাল শিক্ষামন্ত্রীকেও চিঠি পাঠিয়ে সমস্ত বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে আগামী মাসের মধ্যে একটি বৈঠক করার পরামর্শ দিয়েছেন। সেখানে খোদ রাজ্যপালও উপস্থিত থাকবেন, এমনটাই সূত্রের খবর। তবে সেই বৈঠকের সময়সূচী ও অলোচনার বিষয়বস্তু এখনও ঠিক করা হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here