national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বিশেষজ্ঞদের অশনি সংকেত সত্যি হতে চলেছে। যত দিন যাচ্ছে সারা ভারত জুড়ে প্রচণ্ড গতিতে বেড়ে চলেছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। সংক্রমণের বৃদ্ধির হার বলে দিচ্ছে আর দিন কয়েকের মধ্যেই সারা দেশে প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ কোভিড–১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে পড়বে। সুস্থতার হার বাড়লেও আক্রান্তের সংখ্যা কোনওভাবেই কমে আসার লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না।

সংক্রামিতের বাড়বাড়ন্তে পিছিয়ে নেই পশ্চিমবঙ্গও। দিনপ্রতি করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা এক হাজার ছাড়িয়ে দেড় হাজারের সীমানায় প্রবেশ করতে চলেছে। এই অবস্থায় যাতে প্রতিদিন এক লক্ষ মানুষের নমুনার কোভিড–১৯ পরীক্ষা করা যায় তার জন্য প্রস্তুতি নিতে চলেছে রাজ্য সরকার। সুইৎজারল্যান্ডের একটি সংস্থা থেকে অত্যাধুনিক পরীক্ষার যন্ত্র আনার তোড়জোর শুরু হয়ে গিয়েছে বলে জানা গিয়েছে সংশ্লিষ্ট দফতরের আধিকারিক সূত্রে। উক্ত সংস্থাকে মে মাসেই যন্ত্রের বরাত দেওয়া হয়েছে। সরকারি মহলের আসা অগস্ট মাসের যে কোনও সময়ই রাজ্য সরকারের হাতে যন্ত্র পৌঁছে যাবে।

কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ্যেই ৪/৫ টি যন্ত্র আনিয়ে নিয়েছে যার মধ্যে একটি দেওয়া হয়েছে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। এই যন্ত্রের প্রত্যেকটি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ৪০০০ নমুনা পরীক্ষা করতে পারে। বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে দৈনিক ১০ হাজার নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এই ১০ হাজার নমুনা পরীক্ষা করার জন্য খরচ পড়ে দুই থেকে আড়াই কোটি টাকা। এই যন্ত্র পৌঁছলে খরচ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে নেমে আসবে এবং একই সঙ্গে বাড়বে পরীক্ষার সংখ্যা বলে জানানো হয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্রে। এই পরীক্ষা ব্যবস্থাটি ‘কোবাস ৬৮০০/৮৮০০’ নামে পরিচিত।

”আমাদের স্বাস্থ্য দফতরে এবং নাইসেড–এ কয়েকজন টেকনিশিয়ন আছেন যার কোবাস সিস্টেমটি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল। কয়েকজন ক্যালকাটা স্কুল অব ট্রপিকাল মেডিসিন থেকে প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত,” বলে স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিক জানান কোভিড–১৯ নমুনা পরীক্ষার এই পদ্ধতি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দ্বারা অনুমোদিত।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here