ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচন উপলক্ষে দেশজুড়ে আদর্শ আচরণবিধি লাগু হয়ে গিয়েছে অনেক আগেই। আর সেই নিয়মের আওতায় পড়ে আটকে গিয়েছে রাজ্য সরকারের একাধিক জন উন্নয়নমূলক প্রকল্প। সাধারণ মানুষের সুবিধার্থে এই সমস্ত প্রকল্পগুলি যাতে বন্ধ না হয় তার জন্য কিছুদিন আগেই সরব হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই কারণে ‘সমব্যথী’ প্রকল্পটি চালু রাখার অনুমতি দিয়েছিল কমিশন। এবার নতুন করে লোকসভা ভোটের সময় রাজ্য সরকারের ‘রূপশ্রী’ প্রকল্পটিও চালু রাখার অনুমতি দিল নির্বাচন কমিশন।

আদর্শ আচরণবিধি লাগু হওয়ার পরই অবশ্য দীর্ঘমেয়াদি ভোটের সময় ‘সমব্যথী’, ‘রূপশ্রী’-র মত সামাজিক প্রকল্প চালু রাখার জন্য রাজ্যের তরফে নির্বাচন কমিশনে আবেদন জানানো হয়। ‘সমব্যথী’ প্রকল্পটি ছাড় পেয়েছিল আগেই। এবার পেল ‘রূপশ্রী’। যদিও রাজ্য সরকারের তরফে রূপশ্রী, সমব্যথী, স্বাস্থ্য সাথী, কৃষক বন্ধুর মত একাধিক প্রকল্পকে চালু রাখার আবেদন জানানো হয়েছিল। তবে নিয়ম অনুযায়ী, আদর্শ আচরণবিধি লাগু হয়ে যাওয়ার পর এই সমস্ত প্রকল্পগুলির মধ্যে কেউ চালু থাকবে কিনা তা নির্ভর করে নির্বাচন কমিশনের উপর।

দিনকয়েক আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কমিশনের কাছে আবেদন করেন, ইলেকশনের জন্য যদি রাজ্যের এই সমস্ত প্রকল্পগুলি বন্ধ হয়ে যায় সেক্ষেত্রে সমস্যায় পড়বেন রাজ্যের গরিব মানুষেরা। এরপরই রাজ্যের তরফে নির্বাচন কমিশনে আবেদন করে জানতে চাওয়া হয় এই সমস্ত প্রকল্পগুলি চালু রাখা যাবে কিনা? বলাই বাহুল্য কমিশনের এই সিদ্ধান্তকে নৈতিক জয় হিসেবেই দেখবে রাজ্য সরকার। বিশেষ করে যেই সময় নির্বাচনী বিধির কারণে কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক প্রকল্পও বন্ধ করে রাখা হয়েছে, সেই সময়ে রাজ্যের প্রকল্পগুলিকে এমন ছাড় দেওয়া কার্যত বেনজির বলা চলে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here