ডেস্ক: পঞ্চায়েত নির্বাচনকে টার্গেট করেই বিধানসভায় জনমোহিনী বাজেট পেশ করলেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বর্ধিত কোর কমিটির বৈঠক শেষে যে বার্তা দিয়েছিলেন, কাজেও দেখা গেল সাধারণ মানুষের স্বার্থ মাথায় রেখেই স্বল্পের মধ্যে ছাড় দেওয়া হল কৃষিকার্যে। একই সঙ্গে মেয়েদের মধ্যে শিক্ষার প্রসার ঘটাতে এবং নির্বিঘ্নে গরীব মেয়েদের বিয়ের ব্যবস্থা করতে চালু হল মুখ্যমন্ত্রীর মস্তিষ্কপ্রসুত নতুন প্রকল্প ‘রূপশ্রী’।

একনজরে দেখে নেওয়া যায় ২০১৮-১৯ সালের রাজ্য বাজেট

  • গৃহনির্মাণের ক্ষেত্রে স্ট্যাম্প ডিউটিতে ১ শতাংশ ছাড়।
  • ৪০ লাখ থেকে ১ কোটিতে গ্রামাঞ্চলে ৫ শতাংশ স্ট্যাম্প ডিউটি হবে।
  • গৃহনির্মাণের ক্ষেত্রে গ্রামাঞ্চল ও শহরে ১ কোটির উপর ১ শতাংশ ছাড়।
  • ফসলের ক্ষেত্রে কৃষকদের ন্যায্যমূল্য পাওয়ার জন্য ১০০ কোটি টাকার ফান্ড দেওয়া হবে।
  • চা বাগানে কৃষি আয়করে ১০০ শতাংশ ছাড়।
  • চা বাগান থেকে কোনও সেস নেওয়া হবে না।
  • কৃষির জন্য জমি কিনলে মিউটেশন ফি নেওয়া হবে না।
  • ১ লক্ষ বয়স্ক কৃষকদের ১ হাজার টাকা পেনশনের ব্যবস্থা করা হবে।
  • কন্যাশ্রীদের ভাতা ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১ হাজার টাকা করা হল।
  • পারিবারিক আয় দেড়লাখের নীচে হলে ১৮ বছরের পর মেয়ের বিয়েতে ‘রূপশ্রী’ প্রকল্পে এককালীন সাহায্য দেওয়া হবে ২৫ হাজার টাকা। ৬ লাখ পরিবার রূপশ্রী প্রকল্পের সুবিধা পাবে।
  • ৭৫০ টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হল ১০০০ টাকা হল প্রতিবন্ধী ভাতা। নাম দেওয়া হল ‘মানবিক’।
  • ২০১৭-১৮ অর্থবর্ষে রাজ্যে নতুন কর্মসংস্থানের সংখ্যা ৮ লক্ষ ৯২ হাজার।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here