মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রায় খাদের কিনারা থেকে ঘুরে দাঁড়ানো বোধহয় একেই বলে। টুর্নামেন্টের ফেভারিট হিসেবে শুরু করেও শ্রীলঙ্কা ও অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে হারের পর বিশ্বকাপ থেকে প্রায় ছিটকে যাওয়ার মুখে ছিল আয়োজক দেশ ইংল্যান্ড। কিন্তু ভারতকে ৩১ রানে হারিয়ে ফের একবার শেষ চারের দৌড়ে প্রবলভাবে ফিরে এসেছে থ্রি লায়ন্স। ম্যাচের পর উচ্ছ্বসিত ইংরেজ অধিনায়ক অধিনায়ক তাই আত্মবিশ্বাসের সঙ্গেই জানালেন, তাঁর দল এখনও কাপ জয়ের অন্যতম দাবিদার।

ডু অর ডাই ম্যাচে শুরু থেকেই দুরন্ত মেজাজে ছিলেন ইংলিশ ব্যাটসম্যানরা। ওপেনিং জুটিতেই ১৬০ রান তোলেন জনি বেয়ারস্টো (১১১) ও জেসন রয় (৬৬)। চলতি বিশ্বকাপের এটাই সর্বোচ্চ ওপেনিং পার্টনারশিপ। এছাড়া মিডল অর্ডারে নেমে ৭৯ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলেন বেন স্টোকসও। পরে বল হাতে প্লাঙ্কেট ও ক্রিস ওকসের দাপুটে পারফরম্যান্স মূল্যবান দুই পয়েন্ট এনে দেয় ইংল্যান্ডকে।

ম্যাচের পর অধিনায়ক মর্গান বলেন,

‘আমি খুব খুশি। আমরা যেভাবে আজকের ম্যাচ খেলেছি, তাতে আমাদের দলের সবাই খুব উজ্জীবিত। এই জয় আমাদের বাকি ম্যাচের জন্য আত্মবিশ্বাস দেবে। এইভাবে খেললে আমরাও বিশ্বকাপ জিততেই পারি।’

এছাড়া অনবদ্য শতরানের জন্য জনি বেয়ারস্টোরও ভূয়সী প্রশংসা করেন মর্গান। ‘জনির মধ্যে অনেক রানের খিদে রয়েছে। আমি চাইব ও প্রতি ম্যাচেই এই রকম পারফর্ম করুক’, বলেন তিনি।

উল্লেখ্য, কদিন আগেই ‘নেতিবাচক’ ও ‘হতাশাজন’ বলে বেয়ারস্টোকে বিধেছিলেন প্রাক্তন ইংরেজ অধিনায়ক মাইকেল ভন। এদিনের তাঁর পারফরম্যান্সটা যেন ভনের কটাক্ষেরই জবাব। বেয়ারস্টো জানান,

‘প্রতি ব্যাটসম্যানই চায় প্রত্যেক ম্যাচে সেঞ্চুরি করুক। কিন্তু তা সম্ভব হয় না। ফলে অনেকেই ব্যাটসম্যানদের সমালোচনা করে থাকেন। তবে প্রতিটা খেলোয়াড়ই মাঠে সেরাটাই দিতে চায়।’

 

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here