kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মোবাইলে আড়ি পাতা থেকে শুরু করে, হোয়াটস অ্যাপে নজরদারি কেন্দ্রের বিরুদ্ধে গুরুতর এমন অভিযোগ তুলে কিছুদিন আগেই সরব হয়ে উঠেছিল জাতীয় রাজনীতি। বিষয়টি যে শীতকালীন লোকসভা অধিবেশনে উঠতে পারে এমন একটা অনুমান ছিলই। এবার হোয়াটস অ্যাপে আড়ি পাতা নিয়ে সংসদে বিরোধীদের আক্রমণের মুখে পড়ল সরকার পক্ষ। যদিও পাল্টা উত্তরে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের প্রতিমন্ত্রী কিষণ রেড্ডি জানিয়ে দিলেন, নাগরিকের উপর নজরদারির অধিকার রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের।

সংসদ ভবনে মঙ্গলবারের অধিবেশনে এমডিএমকের সাংসদ এ গণেশমূর্তি সরকারকে উদ্দেশ্য করে প্রশ্ন ছোড়ে, তবে কি হোয়াটস অ্যাপকে মাধ্যম করে সরকার নজরদারি চালাচ্ছে জনগনের উপর? প্রশ্নের উত্তরে কেন্দ্রীয় মঞ্জত্রি কিষাণ রেড্ডি জানান, ‘তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৯ ধারা অনুযায়ী দেশের যে কোনও নাগরিকের উপুর নজরদারি চালানোর অধিকার রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের।’ কিষাণ রেড্ডির এহেন উত্তরে রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বিষয়টি যে আশঙ্কার তা স্বীকার করে নিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি হোয়াটস অ্যাপের তরফে দাবি করা হয়, তাদের পরিষেবা ব্যবহারকারী ৪ টি মহাদেসের প্রায় ১ হাজার ৪০০ জন নজরদারির স্বীকার হয়েছেন। এদের বেশীরভাগই সমাজে সম্মানীয় ব্যক্তিত্ব। গোটা ঘটনায় অভিযোগের আঙুল উঠেছে ইজরায়েলই সংস্থা এনএসওর বিরুদ্ধে। বিষয়টি সামনে আসার পরই সরব হয় বিরোধীরা। নিজেদের ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, প্রিয়াঙ্কা গান্ধী ও প্রফুল্ল প্যাটেলের মতো নেতৃত্বরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here