মহানগর ওয়েবডেস্ক: করোনা পরিস্থিতিতে দেশের অর্থনীতির হাল ভয়াবহ। শেষ ত্রৈমাসিকে জিডিপির পতন রেকর্ড গড়েছে। এমন অবস্থায় সরকারের বিরুদ্ধে সরব হয়ে উঠেছে বিরোধী দলগুলি। এরই মাঝে আশার কথা শোনালেন রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস। এদিন এক বিবৃতিতে তিনি জানালেন, ‘ভারতের অর্থনীতিকে স্বাস্থ্যকর জায়গায় পৌঁছে দিতে যে সমস্ত পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি তার সবটাই নেবে রিজার্ভ ব্যাংক।’ বুধবার এক ভার্চুয়াল বৈঠকে উপস্থিত হয়ে তিনি বলেন, ‘দেশের অর্থনীতির সংশোধন এখনও পূর্ণ গতি পায়নি। ধীরে ধীরে কঠিন সমস্যা সমাধানের পথে হাঁটা হচ্ছে।’ ভারতের অর্থনীতির সংশোধনের গতি বৃদ্ধি করার জন্য বেসরকারি ক্ষেত্রগুলিকে যোগদানের আহ্বানও জানান তিনি।

ওই বৈঠকে এ দিন রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর শক্তিকান্ত দাস জানান, কঠিন এই সময়ে লাগাতারভাবে রিজার্ভ ব্যাংক নগদ অর্থের প্রয়োজনীয়তা মিটিয়ে গিয়েছে। যার ফলে কোনও রকম সমস্যা ছাড়া ঋণ নিতে সক্ষম হয়েছে। তার কথায়, গত এক দশকে এই প্রথমবার নগদ ঋণের পরিমাণ এতটা কমেছে। রিজার্ভ ব্যাংকের তরফে প্রচুর পরিমাণ নগদ টাকার যোগানের কারণেই সরকারের ঋণের পরিমাণ এতটা কমানো সম্ভব হয়েছে। যার জেরে গত ১০ বছরের মধ্যে বন্ডের প্রতিফলন সবচেয়ে নিচের স্তরে রয়েছে।

এর পাশাপাশি দেশের জিডিপি প্রসঙ্গে রিজার্ভ ব্যাংকের গভর্নর জানান, দেশের জিডিপির এতখানি পতনের কারণ দেশের বাড়তে থাকা করোনাভাইরাসের দিকেই ইঙ্গিত করছে। এরপরই দেশের অর্থনীতির সংশোধনে গতি আনতে বেসরকারি সংস্থাগুলোকে এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন তিনি। বলেন, দেশের অর্থনীতিকে একটি স্বাস্থ্যকর জায়গায় ফেরাতে বেসরকারী সংস্থাগুলিকে গবেষণা ও উদ্ভাবন, খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ এবং পর্যটন খাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে হবে। ভারতের পর্যটন ক্ষেত্রগুলোতে প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে বেসরকারি সংস্থা গুলির উচিত এই সুবিধা গ্রহণ করা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here