kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: হাপিত্যেশ করে বর্ষা এসেছিল৷ কিন্তু তা পুজোয় কাল হয়ে দাঁড়াবে! টানা ৩ দিন ধরে বৃষ্টিতে নাজেহাল বঙ্গবাসী৷ এবার সে পাত্তারি না গোটালে পুজো মাটি৷ কাল মহালয়া৷ চলে এল পুজো৷ হাওয়া অফিসের প্রেডিকশন পুজোয় বর্ষাসুর দাপট দেখাতে পারে৷ শরতের ঝকঝকে আকাশ দেখতে পাওয়ার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে৷ আকাশের মেজাজমর্জি দেখে বাঙালির মুখে মুখে প্রশ্ন ঘুরছে, দেবীপক্ষেও কি এমনই বৃষ্টি চলবে? শেষ পর্যন্ত উৎসবের মেজাজ পণ্ড হয়ে যাবে কি না, তা নিয়ে বেজায় দোলাচলে পুজোকর্তা থেকে আমজনতা। আবহবিদেরাও আপাতত আশ্বাসবাণী শোনাতে পারছেন না৷

আবহবিদরা কেউ কেউ মনে করছেন, দেবীপক্ষ শুরু হয়ে গেলে বরুণদেবের মেজাজ শান্ত হতে পারে। কিন্তু তাতে ঝকঝকে রোদ মিলবে কি না, তার নিশ্চয়তা নেই। এক আবহবিদের মতে, বৃষ্টি না-হলেও দেবীপক্ষে শুকনো খটখটে আকাশ পাওয়ার আশা কম। এই পরিস্থিতিতে কপালের ভাঁজ চওড়া হচ্ছে পুজোকর্তাদের। পটুয়াপাড়ায় ব্লো-ল্যাম্প জ্বেলে প্রতিমার রং শুকোনোর কাজ চলছে।

দেবীপক্ষে বর্ষাসুরের সম্ভাব্য দোসর হিসেবে দুই ‘অপরাধী’কে চিহ্নিত করেছেন আবহবিদরা। এক, আগামী ৩-৪ দিনের মধ্যে দেশের পূর্ব-পশ্চিমে একটি নিম্নচাপ অক্ষরেখার উদয় হতে পারে। দুই, বাংলাদেশ লাগোয়া বঙ্গোপসাগরে হাজির হতে পারে একটি নিম্নচাপও। তাদের রেশ পুজোর মূল চার দিন পর্যন্ত থাকার সম্ভাবনা কম। কিন্তু তখন যদি বৃষ্টি কমেও আসে, তবু শরতের খটখটে আকাশ পাওয়া কঠিন। কারণ, তখনও বহাল তবিয়তে বঙ্গে থাকবে বর্ষা।
পুজোর প্ল্যানিং সারা৷ শেষবেলার কেনাকাটা চলছে৷ কিন্তু গত ৩ দিন বৃষ্টি সব পণ্ড করে দিয়েছে৷ এখন সে দাপট দেখানো বন্ধ না করলে উপায় নেই৷ তাহলে সেই প্রেডিকশনই কি সত্যি হতে চলেছে? পুজোয় রেনকোট!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here