ডেস্ক: আইন-আদালত এড়াতে যে ‘ধীরে চলো নীতি’ গ্রহণ করেছিল রাজ্য নির্বাচন কমিশন, সেই জায়গাতেই থাকল তারা৷ কোনও রকম তাড়াহুড়ো করে নির্বাচন প্রক্রিয়াকে নতুন করে বিলম্ব করতে নারাজ কমিশন৷ তাই সব দিক খতিয়ে দেখেই পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে চাইছে কমিশন৷ তাই পঞ্চায়েত ভোটের নির্ঘন্ট আজও প্রকাশ করল না নির্বাচন কমিশন৷

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় ফের রাজ্য সরকারের সঙ্গে বৈঠক করবে কমিশন৷ সেখানে ভোট নিয়ে রাজ্যের প্রস্তাব লিখিত আকারে জানানোর কথা বলা হয়েছে রাজ্য সরকারকে৷ কতগুলি দফায় ভোট চায় রাজ্য, সে বিষয়টিও লিখিত আকারে উল্লেখ করতে বলা হয়েছে৷ ভোটের নিরাপত্তায় কত বাহিনী তাও কমিশনের কাছে লিখিত আকারে জানাতে হবে রাজ্য সরকারকে৷ এরপর রাজ্য সরকারের পঞ্চায়েত দফতরের পঞ্চায়েত দফতরের ওএসডি সৌরভ দাসের সঙ্গে ফের বৈঠকে বসার কথা রয়েছে কমিশনের৷ তারপর সবকিছু খতিয়ে দেখে বিকেলের দিকে নির্বাচনের নির্ঘন্ট প্রকাশ করতে পারে কমিশন৷ আসলে এদিনও মতানৈক্যে পৌঁছাতে পারল না রাজ্য নির্বাচন কমিশন ও রাজ্য সরকার৷

এর আগে নিরাপত্তা নিয়ে রাজ্য পুলিশের ডিজির কাছে রিপোর্ট চেয়েছে কমিশন৷ সেই রিপোর্ট এদিনই হাতে পাওয়ার কথা৷ রিপোর্টে রাজ্যের হাতে ঠিক কত পরিমাণ সশস্ত্রবাহিনী রয়েছে জানতে চেয়েছে কমিশন৷ আসলে হাইকোর্ট পঞ্চায়েত ভোটে নিরাপত্তার বিষয়টি খুব গুরুত্বের সঙ্গে দেখছে৷ সিঙ্গল বেঞ্চের বিচারপতি সুব্রত তালুকদার কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছে, নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করে এবং সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনার পরই যেন ভোটে যায় কমিশন৷ কমিশন আদালতের নির্দেশ অক্ষরে অক্ষরে পালন করার যে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, এদিন রাজ্য সরকারের প্রস্তাব লিখিত আকারে জমা দেওয়ার ঘোষণা করার মাধ্যমে তা স্পষ্ট৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here