bengal district news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নাগরিকত্ব বিল পাস হয়ে তা আইনে পরিণত হয়েছে। কিন্তু কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত মানবেন না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই নাগরিকত্ব আইন নিয়ে নতুন করে কেন্দ্রের সঙ্গে সংঘাত শুরু হয়েছে রাজ্য সরকারের। এরই মধ্যে কেন্দ্র থেকেই এল খুশির খবর। ১০০ দিনের কাজের জন্য দেশের মধ্যে সেরা হল বাংলা। পুরস্কৃত হল বাংলার দুই জেলা বাঁকুড়া এবং কোচবিহার।

কেন্দ্রের এই পুরস্কারে প্রথম হয়েছে বাঁকুড়া এবং দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কোচবিহার। একইসঙ্গে সেরা পারফরম্যান্সের পুরস্কার জিতে নিয়েছে দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার কুলপির বাবুরমহল গ্রাম। এদিন সকালেই এই নিয়ে সোশ্যাল সাইটে নিজের অনুভূতি জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি লিখেছেন, ‘বাংলা জাতীয় পুরস্কার পেয়েছে এই খবর সকলের সঙ্গে শেয়ার করতে পেরে আমি অভিভূত। এটা হল হার্ডওয়ার্ক, ডেডিকেশন এবং গোটা টিমের একসঙ্গে হয়ে কাজ করার ফল। রাজ্য, জেলা এবং পঞ্চায়েতের লাগাতার মনিটরিং-এর ফল এই পুরস্কার। ১০০ দিনের কাজে আমাদের রাজ্য সেরা হয়েছে, সকলকে অভিনন্দন।’ উল্লেখ্য, গত দু’বছর পরপর ১০০ দিনের কাজের সেরা জেলার পুরস্কার পেয়েছিল বীরভূম। এবার এই জেলা না হলেও বাঁকুড়া এবং কোচবিহার বাংলাকে এই সম্মান এনে দিল।

প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই যোজনা কমিশনের পরিসংখ্যানে উঠে এসেছিল যে, পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল জমানায় দারিদ্র কমেছে প্রায় ৬% শতাংশ হারে। হিসেবমতো ২০১১-১২ আর্থিক বছর থেকে ২০১৭-১৮ পর্যন্ত এই পাঁচ বছরে বাংলায় সার্বিক ভাবে দারিদ্রের হার কমে হয়েছে ১৩.৯৮ শতাংশ। এই পরিসংখ্যা প্রকাশ্যে আসতেই চওড়া হাসি হেসেছিলেন মমতা। এবার আবারও কেন্দ্রীয় স্বীকৃতি পেয়ে উচ্ছ্বাসের কারণ এবং হার অনেকগুণই বেড়ে গিয়েছে। অন্যদিকে, এ বছরেই আবার রাজ্য পেয়েছে কৃষি কর্মণ পুরস্কার। তবে শুধু এবারই নয়, পরপর ছয়বার। পুরস্কার হিসেবে রাজ্য পেয়েছিল ২ কোটি টাকা। সবমিলিয়ে কেন্দ্রের সঙ্গে যতই সংঘাত হোক, রাজ্যের সাফল্য কখনই ব্রাত্য করে দেখতে পারছে না তারাও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here