ডেস্ক: গত কয়েকদিন যাবত ক্রিকেট বহির্ভূত কারণেই সংবাদমাধ্যমেই শিরোনামে বারবার উঠে এসেছেন ভারতীয় পেস ব্যাটারি মহম্মদ শামি। লালবাজারে তাঁর স্ত্রী শাফিন জাহান এফআইআর দায়ের পর ফের সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুললেন শামি। তিনি বলেন, এই ধরণের কাজের সঙ্গে জড়িত থাকার চেয়ে মরে যাওয়া ভাল।

খুনের চেষ্টা, ধর্ষণের চেষ্টা, বধু নির্যাতনের মতো একাধিক মামলায় মহম্মদ শামির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন তাঁর স্ত্রী হাসিন জাহান। এমনকি পাক যোগ ও ম্যাচ ফিক্সিং-এর মতো গুরুতর অভিযোগও তুলেছেন তিনি। শাফিনের দাবি, তাঁকে মেরে ফেলার চেষ্টা করেছেন শামি। স্ত্রী’র অভিযোগের প্রেক্ষিতে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন শামি। তিনি বলেন, ”দেশের হয়ে খেলার সময় নিজের খেলা নিয়ে কোনও আপস করার চেয়ে মরে যাওয়া ভাল। টিম ইন্ডিয়ার ও বাংলার এই পেসার আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ”হাসিন ও তাঁর পরিবার আমার সঙ্গে এই বিষয়ে আলোচনা করতে চেয়েছেন। কিন্তু আমার মনে হয় এই সবকিছুর পিছনে অন্য কেউ আঙুল ঘোরাচ্ছে।”

উল্লেখ্য, একাধিক অভিযোগ দায়ের হওয়ার পরই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড বিসিসিআই-এর চুক্তি তালিকা থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয় বাংলা ও জাতীয় দলের এই পেসারের নাম। কিন্তু শামিকে স্বস্তি দিয়ে বোর্ডের তরফে এও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে, পুরো ঘটনায় নিজেকে নির্দোষ প্রমাণ করতে পারলেই পুনরায় চুক্তিভুক্ত করা হবে তাঁর নাম। নিজের ফেসবুকে শামির কথাবার্তার বেশকিছু স্ক্রিনশট পোস্ট করে এহেন মারাত্মক অভিযোগ তোলার পরই সাফাই দেন তিনি। শামি লেখেন, ”আমার ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে যা খবর রটেছে তা একেবারেই মিথ্যে। আমায় বদনাম করতে এবং আমার কেরিয়ার শেষ করার চক্রান্ত এসব।” কিন্তু মামলা তাতেও ঠাণ্ডা হয়নি। জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু হয়েছে এই পেস বোলারের নামে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here