mamata banerjee

মহানগর ডেস্ক: ‘আমি ১০ বছর ধরে মুখ্যমন্ত্রী রয়েছি, কোনওদিন একপয়সা নিইনি, এক কাপ চা খেলেও কিনে খাই, অথচ আমাকে বলে কিনা তোলাবাজ! ওদের মুখে পোকা হবে। বাচ্চা ছেলেরা হলে ওদের জিভ টেনে ছিঁড়ে নিত।’ এদিন দমদমের সভা থেকে মোদি-শাহকে ঠিক এই ভাষাতেই আক্রমণ করেন তৃণমূল সুপ্রমো মমতা বন্দোপাধ্যায়। প্রধানমন্ত্রী-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ‘বহিরাগত’ বলে মমতা সাফ জানিয়ে দেন, ‘মিষ্টি চাইলে রসগোল্লা দেব, লাড্ডু চাইলে নারকেল নাড়ু দেব, কিন্তু কিছুতেই বাংলা দেব না।’      

দিলীপ ঘোষের ‘জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে’ মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এদিন দিলীপ ঘোষকে একহাত নেন তৃণমূল নেত্রী। নাম না করে দিলীপ ঘোষকে আক্রমণ শানিয়ে তিনি বলেন, চারজনকে মেরেও ক্ষান্ত হয়নি, আবার বলছে চারজনের জায়গায় আটজনকে গুলি করা উচিত ছিল! এরা নেতা ? এগুলো কোথা থেকে আমদানি হয়েছে ? এদের বাংলার লোক ভাবতে আমার লজ্জা লাগে।’ এখানেই থামেননি মমতা। দিলীপ ঘোষকে নিশানা করে মমতা ফের বলেন, ‘এই ধরনের মন্তব্য যারা করে তাদের অবিলম্বে গ্রেফতার করা উচিত। এরা যাতে রাজনীতির আঙিনায় কোনওদিন পা না রাখতে পারে, তাই এদের অবিলম্বে ব্যান করা উচিত। একইসঙ্গে তিনি সাফ জানিয়ে দেন, ‘আগামী দিনে প্রাইভেট বিল নিয়ে আসা হবে। গুলি করে মেরে দেওয়ার কথা যারা বলে, তাদের রাজনীতি থেকে বহিষ্কৃত করা হবে। তখন দেখবো কত ধানে কত চাল।’

বাংলায় মোদি-শাহের ডবল ইঞ্জিন সরকারকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, ‘সরকারে তো প্রায় সাত বছরের বেশি সময় ধরে বসে আছে, কিন্তু ডবল ইঞ্জিনের সরকার কী করেছে ? নোটবন্দী করে লোকের টাকা ঝেড়েছে, লকডাউন করে দেশের মানুষের ভবিষ্যত নষ্ট করেছে, আর একের পর এক সরকারী সম্পত্তি বিক্রি করেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here