news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: গোটা বিশ্বে আলোড়ন তুলে গতকাল বড় ঘোষণা করেছে রাশিয়া। প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের প্রথম ভ্যাকসিন আবিষ্কার করে ফেলেছেন তারা। এমনকি তাঁর মেয়েকে এই ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। রাশিয়ার ভ্যাকসিন আবিষ্কারের কথা সামনে আসতেই বিশ্বজুড়ে হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে। যদিও এই ভ্যাকসিন নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। আমেরিকা এবং ব্রিটেন সহ একাধিক দেশও এই ভ্যাকসিন নিয়ে বেশ কিছু প্রশ্ন তুলেছে। সব মিলিয়ে রাশিয়ান ভ্যাকসিনকে ১০০ শতাংশ ভরসা করতে পারছে না কেউ।

করোনাভাইরাস ভ্যাকসিন আবিষ্কার করার দৌঁড়ে বিশ্বজুড়ে একাধিক গবেষক এবং বিজ্ঞানীরা অংশ নিয়েছেন। একাধিক সংস্থা ইতিমধ্যেই বহুবার ট্রায়াল করে ফেলেছে প্রস্তাবিত ভ্যাকসিনের। কিন্তু কোনটাই আশানুরূপ ফল দেয়নি এখনও। কিন্তু ঘোষণা অনুসারে নির্ধারিত দিনেই ভ্যাকসিন আবিস্কার করার কথা জানিয়ে দিয়েছে রাশিয়া। এইভাবে ডেডলাইন মেনে ভ্যাকসিন আনায় স্বাভাবিকভাবেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে তার গুণগতমান নিয়ে। কারণ বিশ্বের অধিকাংশ বিশেষজ্ঞদের দাবি এইভাবে ডেডলাইন মেনে ভ্যাকসিন আনা অসম্ভব। 

বিশেষজ্ঞদের একাংশের মতে, রাশিয়া যে ভাইরাস এনেছে তা মানব ট্রায়ালের সমস্ত ধাপ অতিক্রম করেনি। তার আগেই তাকে ভ্যাকসিন হিসেবে সরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়েছে। তাই এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সম্পর্কে দ্বিধা থেকেই যাচ্ছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জানাচ্ছে, সুরক্ষা সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য যাচাই করার পরেই এই ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র দেওয়া হবে। কিন্তু তার আগে রাশিয়ার এই করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন নিয়ে সংশয় প্রকাশ করছে তারা। একই সঙ্গে আমেরিকা এবং ব্রিটেনের মত দেশ রাশিয়ার এই ভ্যাকসিন নিয়ে একদমই আশাবাদী নয়। সে দেশের আধিকারিকরা জানাচ্ছেন, সুরক্ষা সম্পর্কিত সমস্ত ধাপ পাশ করলে সেই ভ্যাকসিনকে সরকারিভাবে ঘোষণা করা যায় না। তাই এক্ষেত্রে রাশিয়ান ভ্যাকসিনকে ১০০ শতাংশ ভরসা করা মূর্খতা। 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here