modi vs rahul

মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদীর স্বাধীনতা দিবসের ভাষণ নিয়ে ফের একবার তাঁকে নিশানায় নিল বিরোধী দল কংগ্রেস। মূলত এই দিনের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী একবারও চিনের নাম মুখে না আনায় এই আক্রমণ চালিয়েছে কংগ্রেস। তারা জানতে চেয়েছে, যারা আমাদের নেতা এবং যারা ক্ষমতায় রয়েছেন তারা চিনের নাম মুখে আনতে এত ভয় পান কেন? যারা ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকেছে তাদের নাম মুখে আনতে এত ভয় কিসের? প্রশ্ন কংগ্রেসের।

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণ শেষ হওয়ার পর এদিন পাল্টা আক্রমণ শানান কংগ্রেস মুখপাত্র রনদীপ সূরযেওয়ালা। তিনি বলেন, প্রত্যেক ভারতীয়র আজকের দিনে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে প্রশ্ন করা উচিত, দেশকে সুরক্ষিত রাখতে এবং চিনকে পিছনে ঠেলতে তারা কী করেছে। প্রসঙ্গত, এদিনের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কাশ্মীর সীমান্ত হোক বা লাদাখ সীমান্ত, যারা দেশের সার্বভৌমত্বকে চ্যালেঞ্জ করেছে ভারতীয় সৈন্যরা তাদের উচিত শিক্ষা দিয়েছে। চিনের নাম না করেই প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে পুরো দেশ এককাট্টা হয়ে লড়ছে।

মোদীর ভাষণ এর পাল্টা দিয়ে সূরযেওয়ালা বলেছেন, ‘কংগ্রেসের প্রত্যেকটি কর্মী এবং ১৩০ কোটি ভারতীয় আমাদের সশস্ত্র বাহিনীদের নিয়ে গর্বিত এবং তাদের ওপর পূর্ণ আস্থা রয়েছে। চিনকে যোগ্য জবাব দেওয়ার জন্য আমরা ভারতীয় সেনাকে স্যালুট জানাই। কিন্তু যারা ক্ষমতায় রয়েছেন তাদের কী? তারা মুখে চিনের নাম আনতে ভয় পান কেন? এমন একটা সময় যখন চিন ভারতীয় ভূখণ্ডে ঢুকে গেছে, প্রত্যেক ভারতীয়র উচিত সরকারকে প্রশ্ন করা, দেশকে সুরক্ষিত রাখতে এবং চিনকে পেছনে ঠেলতে তারা কী করেছে? স্বাধীনতা দিবসে প্রত্যেকের এই প্রশ্ন করা উচিত। গণতন্ত্রের আসল মানে এটাই।’ কংগ্রেসের আরও প্রশ্ন, এই সরকার বাকস্বাধীনতায় আদৌ অবিশ্বাস করে কিনা।

সূরযেওয়ালা জানতে চান, আমাদের সরকার কি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী? আমাদের সরকার কি জনগণের রায় নিতে আগ্রহী? আমাদের কি বাক স্বাধীনতা রয়েছে? ভাবার, ভ্রমণ করার, বা আমরা যা চাইবো সেই পোশাক পরার স্বাধীনতা আমাদের রয়েছে?’ প্রধানমন্ত্রী মোদী আত্মনির্ভর ভারতের প্রচার করলেও পন্ডিত জহরলাল নেহেরু, সরদার বল্লভ ভাই প্যাটেল এবং আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামীরাই আসল আত্মনির্ভর ভারতের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে দিয়ে গেছেন বলে মনে করেন কংগ্রেস মুখপাত্র। তবে যেই সরকার সরকারি সম্পত্তি যেমন ব্যাংক, রেলওয়ে ইত্যাদি বিক্রি করে দেশকে অসহায় করে দিচ্ছে তারা কতটা দেশবাসীকে সুরক্ষিত রাখতে পারবে সেই নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here