মহানগর ডেস্ক: নির্বাচনের দিন প্রকাশ পাওয়ার পরেও মোদির ছবি কেন করোনা টিকার শংসাপত্রে, এই নিয়ে আগেই সরব হয়েছিল তৃণমূল। নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তাঁরা। এবার, এই বিষয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রকের কাছে জবাব চাইল নির্বাচন কমিশন। তবে এই বিষয়ে  কোনও মন্তব্য নির্বাচন কমিশনের তরফে করা হয়নি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নির্বাচন কমিশনের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, এই বিষয়ে সব পক্ষের মতামত জেনে নেওয়া উচিত। নির্বাচনের নির্ঘণ্ট প্রকাশের পর কেন করোনার টিকার শংসাপত্রে মোদির ছবি, তা জানা প্রয়োজন। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই স্বাস্থ্য মন্ত্রক এই কাজ করেছে কি না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। এই বিষয়ে রাজ্যের মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের কাছেও সবিস্তারে রিপোর্ট চেয়ে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

প্রসঙ্গত, করোনার টিকার শংসাপত্রে নির্বাচনী নির্ঘণ্টের পরে কেন ছবি মোদির, এই নিয়ে টুইটারে প্রশ্ন তুলেছিলেন তৃণমূলের সাংসদ ডেরেক ও ব্রায়েন। এরপরেই তৃণমূলের একটি দল রাজ্যের নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিল। তৃণমূলের থেকে দাবি করা হয়, নির্বাচনের দিন প্রকাশ হয়ে যাওয়ার পর থেকেই নির্বাচনী বিধি লাঘু হয়ে যায়। তারপরেও মোদির ছবি করোনার টিকার শংসাপত্রের অর্থ হল নির্বাচনী বিধি লঙ্ঘন হচ্ছে। তৃণমূলের তরফে পেট্রোলপাম্পে মোদির ছবির বিষয়েও আপত্তি জানানো হয়েছিল। এরপরেই নির্বাচন কমিশন রাজ্যের সমস্ত পেট্রোল পাম্প থেকে মোদির ছবি সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দেয়। বিজেপির তরফে পেট্রোলপাম্প থেকে মোদির ছবি সরিয়ে নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বৃহস্পতিবার।

বাংলায় ২৭ মার্চ থেকে বিধানসভা নির্বাচন শুরু হচ্ছে। নয় দফায় বাংলায় নির্বাচন হবে। চলবে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত। দেশের পাঁচ রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের সঙ্গেই বাংলার ভোট গণনা হবে ২ মে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here