kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি: নারদ-কাণ্ডে আগে একটি জনস্বার্থ মামলা করেছিলেন কংগ্রেস নেতা অমিতাভ চক্রবর্তী। সেই মামলায় তিনি উল্লেখ করলেন, নারদ মামলায় চার জন গ্রেফতার হলেও, বাকিদের কেন গ্রেফতার করা হল না? অমিতাভ চক্রবর্তী  বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী এবং মুকুল রায়ের নাম উল্লেখ করে হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছেন।

অমিতাভ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, মহামান্য কলকাতা হাইকোর্টে কাছে আমার আবেদন ছিল, যিনি স্ট্রিং অপারেশন করেছেন তিনি অপরাধী,  না যে সব নেতাকে টাকা নিতে দেখা গিয়েছে তাঁরা?  সেটাই বিচার হোক। এই মামলা প্রসঙ্গে একবার সিবিআই আমাকে ডেকেছিল। তখন আমি সিবিআইকেও একই কথা  বলেছিলাম।

উল্লেখ্য, নারদ-কাণ্ডে গতকাল সিবিআই হাতে গ্রেফতার হয়েছেন দুই মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি, ও ফিরহাদ হাকিম, তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র ও কলকাতার প্রক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। এই চারজনের গ্রেফতারের পর তৃণমূল প্রতিহিংসার রাজনীতি দেখেছিল। তৃণমূলের তরফে বলা হয়, বিজেপি সিবিআইকে কাজে লাগিয়ে প্রতিহিংসার রাজনীতি করছে। কারণ যে অভিযোগে অভিযুক্ত ওই চারজন, সেই একই অভিযোগে অভিযুক্ত মুকুল রায়, শুভেন্দু অধিকারী ও শঙ্কুদেব পাণ্ডা। ওই তিনজন বিজেপিতে আছেন বলে তাদের ডাকেনি সিবিআই।

গতকাল ফিরহাদ হাকিম বলেছিলেন, ‘বিজেপি সব কিনে নিতে পারে। সিবিআই, ইডি সব। এরপর হয়ত ইডি দিয়ে কেস করবে। আইনকে কিনতে পারবে না। আইনি পথে আমরা ন্যায়বিচার পাব।‘  মদন মিত্র বলেছিলেন, ‘আমরা খারাপ শুভেন্দু আর মুকুল ভাল।‘

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here