news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: একেবারে শেষ লগ্নে মৃদু এক বাধা দিয়েছিল প্রকৃতি। খারাপ আবহাওয়ার জন্য থেমে গিয়েছিল মহাশূন্যের উড়ান। তবে সবশেষে জয়ী হল অদম্য জেদ। তৈরি হল নয়া ইতিহাস। দুই যাত্রীকে সঙ্গে নিয়ে আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনের দিকে উড়ে গেল বিশ্বের প্রথম বেসরকারি মহাকাশযানের স্পেস এক্স (Space X)। ‘স্পেস এক্স’-এর এই যাত্রাকে ইতিমধ্যেই ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়েছে আমেরিকা। এই যাত্রার অন্যতম উদ্দেশ্য বিশ্ববাসীর সামনে মহাকাশ পর্যটনের দ্বার খুলে দেওয়া।

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সব ক্ষেত্রে গবেষণার জন্য মহাকাশ যাত্রা আকছার ঘটে। তবে সে যাত্রা নাগাল পায় না পৃথিবীর সাধারণ মানুষ। মহাকাশ পর্যটনের বিষয়টিকে নিয়ে বহুদিন ধরেই চলছিল পরিকল্পনা। আর সেই পরিকল্পনার প্রথম সোপান রচিত হলো স্পেস এক্স-এর হাত ধরে। এই গোটা মিশনের পরিকল্পনা সাজিয়েছে আমেরিকার এক বেসরকারি সংস্থা। তাদেরকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। পৃথিবী থেকে উৎক্ষেপণ ও আবার পৃথিবীতে ফিরে আসা পর্যন্ত গোটা প্রক্রিয়াটি চলছে লাইভ সম্প্রচার।

যে দুই যাত্রীকে বুকে নিয়ে ফ্লোরিডার জন F কেনেডি স্পেস সেন্টার থেকে এই মহাকাশযান উড়ান ভরেছে তারা হলেন, রবার্ট বেনকেন এবং ডগলাস হার্লে। আশা করা হচ্ছে, এই অভিযান সম্পূর্ণরূপে সফলতা লাভ করলেই বেসরকারি উদ্যোগে খুলে যাবে মহাকাশের দরজা। অর্থের বিনিময় ইচ্ছেমতো মহাকাশে বেড়াতে যেতে পারবেন সাধারণ মানুষ। বলার অপেক্ষা রাখে না পৃথিবীবাসীর মহাকাশ পর্যটনের দিকে গুরুত্ব দিয়ে এই অভিযান এক বিশাল উদ্যোগ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here