kolkata news

Highlights

  • কোচবিহারের পুন্ডিবাড়িতে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ
  •  বলেন, বিজেপিকে সভা করতে দেওয়া হচ্ছে না
  • এমনিতেও এই সরকার পড়ে যাবে কিছুদিনের মধ্যে

নিজস্ব প্রতিনিধি, কোচবিহার: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুর নির্বাচন করতে ভয় পাচ্ছেন। তাঁর কাছ থেকে মানুষ সরে গিয়েছে। এই ভাবেই কোচবিহারের পুন্ডিবাড়িতে একটি সংবর্ধনা অনুষ্ঠান থেকে মুখ্যমন্ত্রীকে আক্রমণ করেন বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। একইসঙ্গে এদিন তিনি আরও নানা বিষয় নিয়ে রাজ্যের শাসক দলকে আক্রমণ করেন। বলেন, বিজেপিকে সভা করতে দেওয়া হচ্ছে না। তৃণমূল কংগ্রেসকে সারা জায়গায় সভা করার অনুমতি দেওয়া হলেও বিজেপিকে দেওয়া হচ্ছে না। এমনিতেও এই সরকার পড়ে যাবে কিছুদিনের মধ্যে।

কোচবিহার ২ নম্বর ব্লকের পুন্ডিবাড়ি উত্তরবঙ্গ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে কর্মচারী যৌথ মঞ্চের পক্ষ থেকে বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে সংবর্ধনা জানানোর অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল। সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে কর্মচারী যৌথ মঞ্চের পক্ষ থেকে দিলীপ ঘোষকে সংবর্ধনা জানানো হয়। দিলীপ ঘোষ ছাড়াও এদিন এখানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি কোচবিহার জেলার সভাপতি মালতি রাভা রায় ও অন্যান্য নেতৃত্ব।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপি’র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে বলেন, লোকসভা নির্বাচনে যে ভাবে সাধারণ মানুষের ওপর অত্যাচার করেছে, আজ তারা বাড়ি থেকে বের হতে পারছে না। একজন এমএলএ সিতাই থেকে বাড়ি ছেড়ে থাকতে বাধ্য হয়েছেন। মানুষের ওপর অত্যাচার করলে এরকমই হয়। সৎ সাহস নেই মানুষের সামনে দাঁড়ানোর। উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, আমাদের এখানে একজন মন্ত্রী রয়েছেন। বিখ্যাত মন্ত্রী, সবচেয়ে উঁচু মন্ত্রী। তবে এখন তিনি ঢুকে গিয়েছেন। তাঁর কথা কেউ শোনে না। কারণ, তারা অত্যাচার করেছেন। আমরা এই অত্যাচারকে দূর করে নরেন্দ্র মোদীর প্রশাসন এখানে নিয়ে আসতে চাই। সেটাই মানুষ শুনেছেন। মানুষ আমাদের এখান থেকে লোকসভায় জিতিয়েছেন।

একই সঙ্গে তিনি আরও বলেন, মমতা ব্যানার্জী সিএএ-কে আটকানোর জন্য রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন, আর এদিকে প্রশাসন ভেঙে পড়ছে। বিজেপি কর্মীদের শুধু কেস দেওয়া হচ্ছে। বিজেপিকে সভা করতে দেওয়া হচ্ছে না। তৃণমূল কংগ্রেসকে সারা জায়গায় সভা করার অনুমতি দেওয়া হলেও বিজেপিকে দেওয়া হচ্ছে না। এমনিতেও এই সরকার পড়ে যাবে কিছুদিনের মধ্যে। এদিন সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের পরে ফালাকাটায় অভিনন্দন যাত্রা যোগ দিতে যান বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here